default-image

সিয়াম আরও লিখেছেন, ‘এর মাঝে প্রথমেই বলব “পরাণ” সিনেমার কথা। রায়হান রাফী আমার প্রথম পরিচালক, তার হাত ধরেই সিনেমায় এসেছি আমি। “পোড়ামন ২” সেই বছরের ঈদ রিলিজ ছিল, খুব কম হলে মুক্তি পেয়েছিল। কিন্তু দর্শকদের ভালোবাসায় সিক্ত হয়ে দ্রুতই “পোড়ামন ২” ছড়িয়ে গিয়েছিল দেশের প্রত্যন্ত সব অঞ্চলের হলগুলোতেও। রাফী এবার আসছে “পরাণ” নিয়ে। আমি আশাবাদী, এই সিনেমাও দর্শকদের ভালোবাসায় সিক্ত হবে। এ ছাড়া “দিন : দ্য ডে” ও “সাইকো” রিলিজ পাচ্ছে। অনন্ত জলিল ভাইয়ের জন্য শুভকামনা রইল। শুভকামনা রইল রোশান ও আমার প্রথম সিনেমার কো-আর্টিস্ট পূজা চেরীর জন্যেও।’ তিনটি সিনেমা জন্য স্ট্যাটাসকে সাধুবাদ জানিয়েছেন সিয়াম ভক্তরা।

default-image

তবে তিনটি নয়, ‘দিন : দ্য ডে’ ও ‘পরাণ’ সিনেমা দুটির জন্য ফেসবুকে শুভকামনা জানিয়ে চিত্রনায়ক আরিফিন শুভ লিখেছেন, ‘ ঈদ মোবারক। ঈদের আনন্দ ছড়িয়ে পড়ুক সবার মাঝে। ঈদের সিনেমা “পরাণ” এবং “দিন : দ্য ডে” সবার মধ্যে বাড়তি আনন্দ নিয়ে আসুক এই কামনা করি। বাংলা সিনেমার পাশেই থাকুন।’ তার স্ট্যাটাস থেকে বাদ গেছে “সাইকো” সিনেমা কথা। এই নিয়ে অনেকেই এই নায়কের ফেসবুক স্ট্যাটাসে প্রশংসা ও তিরস্কার—দুটিই করেছেন। এক ভক্ত লিখেছেন, ‘বাংলা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি বাঁচাতে হলে এভাবেই সবাই একসঙ্গে কাজ করতে হবে, স্ট্যাটাসটি ভালো লাগল।’ আরেকজন লিখেছেন, ‘ঈদে সিনেমা মুক্তি পাচ্ছে তিনটি৷ আপনি দুটির জন্য শুভকামনা জানাচ্ছেন, আরেকটা ছবি কি দোষ করল? সেটা কি চাঁদের দেশে মুক্তি পাচ্ছে?’

default-image

এদিকে প্রশংসা পাচ্ছেন তরুণ চিত্রনায়ক সাইমন সাদিক। তিনি গল্প ও মজার ছলে লিখেছেন, ‘“পরাণ”–এ যদি আঘাত লাগে, তুই বুইঝা লইস, আমি “সাইকো” হইয়া যামু। মোটামুটি মাথার তার জোড়া লাগলে, ঈদের “দিন : দ্য ডে”তে কমু, বহুত পাকনামি হইছে—চল কোরবানির গোসত খাইয়া সিনেমা হলে যাই। আমগো দেশের সিনামারে ভালোবাইসা, ভালোবাসার গান গাই।’ অনেকেই তার এমন স্ট্যাটাসটির প্রশংসা করেছেন। এর অন্যতম কারণ সাইমন সম্প্রতি মুক্তি পাওয়া প্রায় সব সিনেমার জন্য প্রচারণা করে থাকেন।

ফেসবুক ঘরে দেখা যায়, চিত্রনায়ক শাকিব খান, জয়া আহসান, বুবলি, ইমন, নিরব, ববিসহ অনেককেই কোনো সিনেমা নিয়েই কিছু লিখতে দেখা যায়নি। চলচ্চিত্র পরিচালক ও বিশ্লেষক মতিন রহমান বলেন, ‘কে কার সিনেমার প্রচারণা করবে, এটা তাদের ব্যক্তিগত ইচ্ছা। এটার জন্য কাউকে দোষারোপ করা যাবে না। আর এখন যেহেতু সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেই দর্শক বেশি সরব হন। সেই জায়গা থেকে একে অন্যের সিনেমার প্রচারণা চালালে বেশিসংখ্যক দর্শকের কাছে পৌঁছানো সম্ভব।’

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন