‘পাসওয়ার্ড’ ছবিতে অভিনয় করেছেন বুবলী ও শাকিব খান।
‘পাসওয়ার্ড’ ছবিতে অভিনয় করেছেন বুবলী ও শাকিব খান।ফাইল ছবি

চলচ্চিত্র ইন্ডাস্ট্রিতে করোনাভাইরাস সংক্রমণের প্রভাব পড়েছে। সিনেমা হল খুললেও আসন ফাঁকা, দর্শক নেই। লোকসানের ভয়ে নতুন ছবি মুক্তি দিচ্ছেন না প্রযোজকেরা। ফলে ছবি নির্মাণের সংখ্যা ক্রমেই কমছে। কমছে ছবির বাজেট।
করোনা সংক্রমণের আগে শাকিব খানের ছবিগুলোর গড় বাজেট ছিল দুই থেকে তিন কোটি টাকা। এখন শাকিব খানের ছবির বাজেট বেঁধে ফেলা হচ্ছে এক কোটি থেকে দুই কোটি টাকার মধ্যে। অন্যান্য তারকার ক্ষেত্রেও কমেছে ছবির বাজেট। যেসব তারকার ছবির বাজেট আগে ছিল গড়ে আশি লাখ থেকে দেড় কোটি টাকা, সেই তারকাদের ছবি এখন বানানো হচ্ছে পঞ্চাশ লাখ থেকে কোটি টাকার মধ্যে।
চলচ্চিত্র নির্মাণসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের বক্তব্য, বাজেট কমার মূল কারণ উঠে এসেছে দুটি।
এক. সিনেমা কমে যাওয়ায় তারকারা তাঁদের পারিশ্রমিক কমিয়ে দিয়েছেন, যাতে অল্প বাজেটেই প্রযোজক সিনেমা নির্মাণে এগিয়ে আসতে পারেন। কারণ, শাকিব খান নতুন স্বাভাবিকের প্রথম দিকে ঘোষণা দিয়েছিলেন, তিনি পারিশ্রমিক কমাবেন। সেই কাতারে এসে যুক্ত হয়েছেন মাহিয়া মাহি, নুসরাত ফারিয়া, বাপ্পী চৌধুরী, মিশা সওদাগর, বিদ্যা সিনহা মিম, পূজা চেরি প্রমুখ অভিনয়শিল্পীরা।

default-image

দুই. প্রযোজকেরা বড় বাজেটে ছবি নির্মাণ করে ঝুঁকি নিতে চান না। তাই কম বাজেটে ছবি নির্মাণের দিকে আগ্রহী হয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

শাকিব খান অভিনীত সুপার হিরো, ক্যাপ্টেন খান, পাসওয়ার্ড, শাহেনশাহ, বিদ্রোহী, বীরসহ বেশির ভাগ ছবিরই বাজেট আড়াই কোটি টাকার মধ্যে। কিন্তু নতুন স্বাভাবিকে শাকিব অভিনয় করবেন নাম ঠিক না হওয়া এমন একটি ছবির শুটিং শুরু করার কথা আছে।

default-image

ছবিটির বাজেট দেড় কোটি টাকার মধ্যে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ওই ছবির প্রযোজক টপি খান। তিনি বলেন, ‘শাকিব খানের সহযোগিতায় এটি সম্ভব হচ্ছে। কারণ, তিনি আগের পারিশ্রমিক থেকে এখন বেশ কম নিচ্ছেন। ছবিসংশ্লিষ্ট অনেকেই পারিশ্রমিক কম নিচ্ছেন। বাজেট আয়ত্তের বাইরে চলে গেলে ছবি বানাতাম না।’
চিত্রনায়ক ইমন ও নায়িকা নিশাত নাওয়ার সালওয়াকে নিয়ে বীরত্ব ছবির শুটিং চলছে রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে। বাজেট কমানোর জন্য ছবিতে খুব একটা ইনডোর শুটিং রাখা হয়নি। ছবির পরিচালক জানান, ছবিটি পরিকল্পনার সময় বাজেট ধরা হয়েছিল দুই কোটি টাকা। কিন্তু নতুন স্বাভাবিকে শুটিংয়ে নামার আগে নতুন পরিকল্পনাতে ছবির বাজেট কমিয়ে আনা হয়েছে। পরিচালক সাইদুল রানা বলেন, প্রথমে দুই কোটি টাকা ছবির বাজেট ধরা হয়েছিল। এখন ১ কোটি ২০ লাখ টাকার মধ্যে শুটিং শেষ করার চেষ্টা করছি। ছবির অভিনয়শিল্পী, কলাকুশলী সবাই সহযোগিতা করছেন।

এ প্রসঙ্গে চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির মহাসচিব বদিউল আলম বলেন, করোনার কারণে শিল্পীরা পারিশ্রমিক কমিয়েছেন। বাড়তি খরচ এড়াতে প্রযোজক সমিতি থেকে শুটিংয়ের একটি নীতিমালা করা হয়েছে। সবাই এগিয়ে এসেছেন, তাই আগের থেকে কম টাকায় ছবি নির্মাণ করা যাচ্ছে।

default-image

পরিচালক মনতাজুর রহমানের ময়না ছবির শুটিং চলছে। ৩ নভেম্বর থেকে বন্ধন বিশ্বাসের ছায়াবৃক্ষ, ৬ নভেম্বর থেকে কাজী হায়াতের যোগ্য সন্তান, ১৫ নভেম্বর থেকে দেলোয়ার জাহানের তুমি আছো, তুমি নেই ছবির শুটিং শুরু হওয়ার কথা।
যোগ্য সন্তান ছবির বাজেট ৮০ লাখ টাকা। ছবির নির্মাতা কাজী হায়াৎ বলেন, ‘এমন খারাপ পরিস্থিতি তৈরি না হলে এই ছবির বাজেট থাকত দেড় থেকে দুই কোটি টাকা। ৮০ লাখ টাকায় নির্মাণ করতে হচ্ছে। বাণিজ্যিক ছবির প্রযোজকেরা ছবিতে বিনিয়োগ করেন ব্যবসার জন্য, প্রেক্ষাগৃহ থেকে টাকা তুলে আনার জন্য। কিন্তু বর্তমানে হল ব্যবসার অবস্থা শোচনীয়। পরিচালক হিসেবে প্রযোজককে সহযোগিতা করার একটা দায় আছে। তাই এই কম বাজেটেও ছবিটি নির্মাণ করছি।’

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0