বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে দীঘি বলেন, ‘নতুন একটা কাজের সঙ্গে যুক্ত হচ্ছি। খুবই ভালো লাগছে। নতুন একটা অভিজ্ঞতা হবে। ভিন্নতার জন্যই কাজটি করছি। বাইরে এই ধরনের প্রোগ্রাম অনেক হয়। কিন্তু আমাদের দেশে তুলনামূলকভাবে একটু কম হয়। আগে এই ধরনের প্রস্তাব পেলে আগেই করা হতো। এবার যখন প্রস্তাবটা পেলাম, মনে হলো চেষ্টা করে দেখি।’

default-image

র‍্যাম্পে হাঁটার প্রস্তাব পেয়ে প্রথমে অবশ্য কিছুটা দ্বিধায় ছিলেন দীঘি। ভেবেছিলেন পারবেন কি না। পরে কিছু ভিডিও দেখেছেন। কাছের অনেক সহকর্মীদের দেখতেন কীভাবে র‍্যাম্পে হাঁটেন। সেই অভিজ্ঞতা এখন কাজে লাগাচ্ছেন। তিনি বলেন, ‘আমি শুধু একটাই ভয় পাচ্ছিলাম, র‍্যাম্পে হাঁটা ডিফারেন্ট। সবাই এটা পারে না, আমি কি পারব!—এমন প্রশ্ন মনে এসেছিল। এখন চেষ্টার মধ্যে আছি। বেশ কয়েকবার বাসাতেই রিহার্সাল করেছি। পা ফেলার আলাদা ধরন আছে। সেগুলো শিখেছি। মোটামুটি আমার কাছে ভালোই লাগছে। মনে হচ্ছে হাঁটতে পারব’, বলেন দীঘি।

default-image

পড়াশোনার জন্য আপাতত অভিনয় থেকে দূরে রয়েছেন দীঘি। সর্বশেষ অনুদানের সিনেমা ‘শ্রাবণ জ্যোৎস্না’য় অংশ নিয়েছিলেন তিনি।

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন