‘মাসুদ রানা’ ছবির শুটিংয়ে রাসেল রানা
‘মাসুদ রানা’ ছবির শুটিংয়ে রাসেল রানা সংগৃহীত

পাহাড়ে শুটিং করতে গিয়ে আহত হয়েছেন ‘মাসুদ রানা’ ছবির অভিনেতা রাসেল রানা। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় একটি অ্যাকশন দৃশ্যের শুটিংয়ে দুর্ঘটনার কবলে পড়েন তিনি। বিস্ফোরিত বোমা থেকে সেটে আগুন ধরে যায়। এতে অভিনেতার মাথার পেছনের অংশের কিছু চুল পুড়ে গেছে। মুখ ও হাত ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। তবে শুটিংয়ে নিরাপত্তা সরঞ্জাম থাকায় অন্য কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। ঘটনাস্থল থেকে দ্রুত রাসেল রানাকে সরিয়ে নেওয়া হয়। প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর তিনি সুস্থ আছেন।

ঘটনা গত শুক্রবার সন্ধ্যার। চট্টগ্রামের আনোয়ারার হাইহিল পার্কের ওপর শুটিং চলছিল। ছবির দৃশ্যে পাহাড়ের ওপরে মাসুদ রানার তাবুতে বোমা হামলা করবে একদল সন্ত্রাসী। আগে থেকেই গোপনে তাবুতে বোমা রাখা থাকবে। বিস্ফোরণের সঙ্গে সঙ্গে তাবুতে আগুন লেগে যাবে। তাবু থেকে মাসুদ রানা দৌড়ে পালিয়ে যাবে। দৃশ্য ধারণের জন্য সবাই প্রস্তুত। প্রস্তুত ছিলেন মাসুদ রানাও। ক্যামেরার মুখ তাবুর দিকে, বোমার সুইচে হাত রেখে প্রস্তুত আরেকজন। পরিচালক অ্যাকশন বলার সঙ্গে সঙ্গে বোমার সুইচ টেপা হয়। বিস্ফোরণও হয়, তাবুতে আগুনও ধরে যায়। কিন্তু ঠিক সময়ে তাবু থেকে বের হতে না পারায় আগুনের মুখে পড়েন মাসুদ রানা ওরফে রাসেল রানা।

বিজ্ঞাপন
default-image

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ছবির পরিচালক সৈকত নাসির বলেন, ‘বোমা ফাটানো ও মাসুদ রানার তাবু থেকে দৌড়ে বের হওয়ার টাইমিং মেলেনি। অ্যাকশন বলার সঙ্গে সঙ্গে বোমার সুইচ টিপে দেওয়া হয়। কিন্তু মাসুদ রানা সময় মতো তাবু থেকে বের হতে পারেনি। আর তাতেই এই ঘটনা ঘটেছে।’ এই পরিচালক আরও বলেন, ‘চূড়ান্তভাবে দৃশ্যটি নেওয়ার আগে বোমা না ফাটিয়ে আমরা কয়েকবার মহড়াও করেছিলাম। তারপরও দুর্ঘটনা ঘটে গেল। আমাদের সেটে সেফটির ব্যবস্থা ছিল। দ্রুত ব্যবস্থা নিতে পেরেছি। নয়তো বড় রকমের অঘটন ঘটতে পারত।’

দৃশ্যটি স্ট্যান্টম্যান দিয়ে করানো যেত কি না, জানতে চাইলে সৈকত নাসির বলেন, ‘সেটাই করতে চেয়েছিলাম। শিল্পীও প্রস্তুত ছিলেন। কিন্তু পারফেকশনের জন্য রাসেল রানা নিজেই শটটি দিতে আগ্রহী ছিলেন। পরে অবশ্য দৃশ্যটি রাসেল রানাই করেছেন।’

default-image

এদিকে দুর্ঘটনার পর থেকে অনেকটা ঘোরের মধ্যে চলে গেছেন অভিনেতা রাসেল রানা। তবে শুটিং বন্ধ করেননি। চট্টগ্রামের শুটিং লোকেশন থেকে তিনি বলেন, ‘আগুনে মাথার পেছনের কিছু চুল পুড়ে গেছে। হাত ও মুখে আঁচ লেগেছে। তবে ইউনিটের সবার সহযোগিতায় বড় রকমের দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেয়েছি। আমি সুস্থ আছি, শুটিং চালিয়ে যাচ্ছি।’

১ মার্চ থেকে চট্টগ্রামে শুরু হয়েছে ‘মাসুদ রানা’ ছবির শুটিং। এরই মধ্যে ছবির প্রায় ৫০ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। ১৬ মার্চ পর্যন্ত এই ধাপের শুটিং চলবে। পরের অংশের শুটিং হবে ঢাকায়। ‘মাসুদ রানা’ ছবিতে আরও অভিনয় করছেন পূজা চেরি, অমিত হাসান, অমনি, মাসুম বাসার প্রমুখ। কাজী আনোয়ার হোসেনের থ্রিলার উপন্যাস ‘মাসুদ রানা’ থেকে ছবির চিত্রনাট্য লিখেছেন আবদুল আজিজ। ছবিটি প্রযোজনা করছে জাজ মাল্টিমিডিয়া।

বিজ্ঞাপন
ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন