বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পরিবার নিয়ে কয়েক বছর ধরে অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে থাকেন ঢালিউডের জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা শাবনূর। অস্ট্রেলিয়া-বাংলাদেশে যাওয়া-আসার মধ্যে থাকলেও, পৃথিবীব্যাপী করোনার সংক্রমণের কারণে ইচ্ছা থাকা পরও দেশে আসতে পারেননি তিনি। শাবনূর জানালেন, এই মুহূর্তে অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলসের ওয়েস্টমেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তিনি।

default-image

হাসপাতাল থেকে শাবনূর কথা বলেন প্রথম আলোর সঙ্গে। জানালেন, কিছুদিন ধরে তিনি শারীরিকভাবে দুর্বলতা অনুভব করছিলেন। এর মধ্যে যোগ হয় পিঠের ব্যথা। পিঠের ব্যথা বেশি ভোগাতে থাকলে বাধ্য হয়ে হাসপাতালে চেকআপ করতে যান, চেকআপ শেষে বাসায় ফেরার পর জানতে পারেন, করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

default-image

শাবনূর বলেন, ‘আমার করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবরটি জানার পর থেকেই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ নিজ উদ্যোগে খোঁজখবর রাখা শুরু করে। পরদিন শ্বাসকষ্টের সমস্যার কথা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে জানানো হলে আমাকে ভর্তি হওয়ার পরামর্শ দেয়। তারপর দ্রুত সময়ে বাসার সামনে অ্যাম্বুলেন্স হাজির। এত দ্রুত সেবা পাব, কল্পনাও করিনি। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ আমাকে এখন অবজারভেশনে রেখেছে। নানা ধরনের টেস্ট করিয়েছে। সবার কাছে সুস্থতার জন্য দোয়া চাইছি। একই সঙ্গে সবাইকে জীবনযাপনে সাবধান হওয়ার অনুরোধও করছি।’

কোভিডে আক্রান্তের পর কী কী ধরনের সমস্যা অনুভব করছেন, জানতে চাইলে শাবনূর বললেন, ‘ব্রিদিং প্রবলেমের পাশাপাশি খুসখুসে কাশি আছে। মাথাব্যথা, বুকে ব্যথা ও খাওয়ার অরুচি আছে।’
করোনার দুটি টিকা নিয়েছেন শাবনূর। এদিকে করোনায় আক্রান্ত শাবনূর হাসপাতালে থেকে একমাত্র ছেলেকে নিয়ে চিন্তিত, কারণ তাঁর একমাত্র ছেলের আজ জন্মদিন। দিনটিতে ছেলের পাশে না থাকতে পেরে কষ্ট অনুভব করছেন বলেও জানালেন তিনি।

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন