বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

পাণ্ডুলিপি কারখানা প্রযোজিত এই চলচ্চিত্রের প্রেক্ষাপট সম্পর্কে পরিচালক নূরুল আলম আতিক জানালেন, ‘১৯৭১ সাল। বাংলাদেশ এক বন্দিশালা। বিহারি–অধুষিত ছোট এক শহর। সেখানে ব্রিটিশদের গড়া বিমানবন্দর সচল করতে সেনাবাহিনী আসে। পাকিস্তান সেনাবাহিনীর উপস্থিতিতে জনপদে ঘটে যাওয়া কাহিনি নিয়ে নির্মিত হয়েছে “লাল মোরগের ঝুঁটি”। আমাদের সিনেমায় মুক্তিযুদ্ধ একরৈখিকভাবে উপস্থাপিত হয়, এর বাইরেও অসংখ্য প্রেক্ষাপট রয়েছে, “লাল মোরগের ঝুঁটি” তেমন একটি প্রচেষ্টা।’

ছবিটির প্রযোজক মাতিয়া বানু শুকু বলেন, ‘স্বাধীনতার ৫০ বছরে “লাল মোরগের ঝুঁটি”কে বলব সিনেমার মুক্তিযুদ্ধ। নির্মাণপ্রক্রিয়ায় নানা প্রতিবন্ধকতার পরও আমরা ছবিটা শেষ করেছি। বাংলাদেশের ৫০ বছর উদ্‌যাপনে এই ছবিটি আমাদের নিবেদন।’

‘লাল মোরগের ঝুঁটি’তে অভিনয় করেছেন লায়লা হাসান, আহমেদ রুবেল, আশনা হাবিব ভাবনা, দিলরুবা দোয়েল, স্বাগতা, অশোক ব্যাপারী, আশীষ খন্দকার, জয়রাজ, শিল্পী সরকার অপু, ইলোরা গওহর, জ্যোতিকা জ্যোতি, শাহজাহান সম্রাট, জোবায়ের, দীপক সুমন প্রমুখ।

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন