বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

রায়হান রাফী পরিচালিত ‘নূর’ চলচ্চিত্রের অর্থলগ্নিকারী প্রতিষ্ঠান শাপলা মিডিয়া। প্রধান চরিত্রে অভিনয়ের পাশাপাশি এই চলচ্চিত্রের নির্বাহী প্রযোজকের দায়িত্বে আছেন আরিফিন শুভ। প্রথম আলোকে ঐশী বললেন, ‘আমার জীবনের প্রথম চলচ্চিত্র “মিশন এক্সট্রিম”। এই চলচ্চিত্রে সহশিল্পী হিসেবে পেয়েছি শুভ ভাইয়াকে। আমি তো নিজেকে ব্লেসড ভাবি। কারণ, প্রথম সিনেমায় তাঁর মতো কো-আর্টিস্ট পেয়েছি। আমি কয়েকটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছি কিন্তু তাঁর মতো দায়িত্বশীল সহশিল্পী খুবই কম দেখেছি। তাঁকে আমার দারুণ একজন ছায়াসঙ্গী মনে হয়। তাই তো তাঁর সঙ্গে কাজ করতে খুবই পছন্দ করি।’

default-image

চলচ্চিত্রের গল্পটিও ঐশীর মন ছুঁয়েছে। ঐশী বলেন, ‘গল্পটা পুরোপুরি শোনার পর মনে হচ্ছিল, এমন গল্পের অংশ হতে কে না চায়। পুরোপুরি একটি প্রেমের গল্প।’ তবে এই মুহূর্তে চরিত্রটি সম্পর্কে কোনো ধারণা দিতে চান না তিনি।

ঐশী জানালেন, সর্বশেষ বিধিনিষেধের আগে এই চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য চুক্তিবদ্ধ হন। বড় একটি প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে তাঁকে যেতে হয়েছে। অডিশন দিতে হয়েছে। এর পর থেকে পরিচালক, নির্বাহী প্রযোজকসহ ইউনিট সংশ্লিষ্ট সবার সঙ্গে নিজের চরিত্র ও পুরো গল্পটি নিয়ে একাধিকবার আলাপ করতে হয়েছে। মহড়ায়ও অংশ নিয়েছেন তাঁরা।

default-image

এপ্রিলের শেষ দিকে ফেসবুকে ‘নূর’ চলচ্চিত্রের ঘোষণা দেন আরিফিন শুভ। এই চলচ্চিত্রের মাধ্যমে নতুন ধরনের কাজের অভিজ্ঞতা হতে যাচ্ছে বলেও জানান শুভ।

default-image

তাঁর মতে, ‘ক্যামেরার পেছনের কাজগুলো তিনি যতটা সহজ মনে করেছিলেন, ততটা সহজ নয়। প্ল্যানিং চূড়ান্ত হওয়ার পর থেকে প্রতিদিন পরিচালক, সহকারী পরিচালক, লাইট, ক্যামেরা, প্রোডাকশন টিম সবার সঙ্গে বসতে হয়েছে। আমার কাজে কোনো গাফিলতি হলে শুটিং বন্ধ। এটা অনেক বড় দায়বদ্ধতা। আগে শুটিং শেষ করলেই আমার দায়িত্ব শেষ হয়ে যেত। পরে প্রচারণায় অংশ নিতাম। এবার শুটিং শেষ করেও আমাকে পেছনের কাজগুলোতে থাকতে হবে।’

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন