সেই ভিডিওতে তাঁকে একজন প্রশ্ন করেন, আপনার কাছে টিকিট বিক্রি করেনি কেন? লুঙ্গিপরা ব্যক্তিটি বলেন, ‘আমি লুঙ্গিপরা। লুঙ্গি পরেছি বলে আমার কাছে টিকিট বিক্রি করবে না।’ কিছুক্ষণ পর তাঁকে আবার প্রশ্ন করা হয়, তাহলে এখন সিনেমা দেখবেন কীভাবে? লুঙ্গিপরা ব্যক্তি বলেন, ‘এখন চলে যাব। চলে যাচ্ছি।’ বয়স্ক ওই ব্যক্তিকে দেখা যায় হাসিমুখে বের হয়ে হয়ে যেতে। তাঁর মুখে হাসি থাকলেও এমন ঘটনায় ব্যথিত ‘পরাণ’ সিনেমার পরিচালক রায়হান রাফি, নায়ক শরীফুল রাজ, নায়িকা বিদ্যা সিনহা মিমসহ চলচ্চিত্র ও নাট্য অঙ্গনের অনেকেই।
বিষয়টি জানার পর কষ্ট পেয়েছেন ‘পরাণ’-এর নায়ক শরীফুল রাজে। তিনি রাতেই ফেসবুকে লিখেছেন, ‘এই বৃদ্ধ বাবার সন্ধান দিতে পারবেন কেউ? আমাকে শুধু ইনবক্সে তাঁর নম্বর বা ঠিকানা ম্যানেজ করে দিন প্লিজ। আমি নিজে তাঁর সাথে আমার টিম নিয়ে বসে “পরাণ” দেখব। আমরা ছবিটা দেখব, বাবা-ছেলে গল্প করব। আমাকে কেউ একটু জোগাড় করে দেন প্লিজ।’

আজ যদি আমার বাবা এভাবে লুঙ্গি পরে সিনেমা হলে যেতেন এবং তারা শুধু লুঙ্গির জন্য যদি সিনেমা টিকিট না বিক্রি করতেন, সে ঘটনায় যেমন ব্যথিত হতাম, ঠিক তেমনিভাবে ব্যথিত হয়েছি। মানবিকভাবে এটা আমাদের কাছে দৃষ্টিকটু মনে হয়েছে। আমরা তাঁকে খুঁজছি।
শরিফুল রাজ
default-image

আজ বৃহস্পতিবার সকালে রাজের সঙ্গে কথা হলে তিনি প্রথম আলোকে বলেন, ‘আজ যদি আমার বাবা এভাবে লুঙ্গি পরে সিনেমা হলে যেতেন এবং তারা শুধু লুঙ্গির জন্য যদি সিনেমা টিকিট না বিক্রি করতেন, সে ঘটনায় যেমন ব্যথিত হতাম, ঠিক তেমনিভাবে ব্যথিত হয়েছি। মানবিকভাবে এটা আমাদের কাছে দৃষ্টিকটু মনে হয়েছে। আমরা তাঁকে খুঁজছি। “পরাণ” সেই বাবাকে পাশে নিয়ে দেখব।’ এ সময় তিনি আরও বলেন, ‘আমি আসলে সত্য ঘটনা কী, এটা এখনো বলতে পারছি না। অনেকেই মনে করছেন, এটা আমরা ইস্যু বানিয়েছি, যা সত্য নয়। আমাদের সিনেমা এখনো দর্শকেরাই দেখছেন। এ ধরনের প্রচারণা আমরা কেন করব? এটা আমাদের কাছে দৃষ্টিকটু মনে হয়েছে। ঘটনাটি আমাদের সিনেমা নিয়ে। লুঙ্গি আমাদের জাতীয় পোশাক। একজন বয়স্ক মানুষকে এভাবে ফিরে যেতে দেখে খারাপ লেগেছে। যে কারণেই তাঁর সঙ্গে সিনেমাটি দেখব আমরা। তাঁকে খুঁজছি। তাঁকে পাওয়া গেলেই ঘটনাটি জানা যাবে। শুধু শুধু এটাকে সিনেমার প্রচারণার ইস্যু বানাবেন না।’

অভিনেত্রী বিদ্যা সিনহা মিম ফেসবুকে লিখেছেন, ‘এই বৃদ্ধ বাবার সন্ধান দিতে পারবেন কেউ? আমাকে শুধু ইনবক্সে তাঁর নম্বর বা ঠিকানা ম্যানেজ করে দিন প্লিজ। আমি নিজে তাঁর সাথে বসে “পরাণ” দেখব। আমরা ছবিটা দেখব, বাবা-মেয়ে গল্প করব। আমাকে কেউ একটু জোগাড় করে দিন প্লিজ।’
default-image

অভিনেত্রী বিদ্যা সিনহা মিম ফেসবুকে লিখেছেন, ‘এই বৃদ্ধ বাবার সন্ধান দিতে পারবেন কেউ? আমাকে শুধু ইনবক্সে তাঁর নম্বর বা ঠিকানা ম্যানেজ করে দিন প্লিজ। আমি নিজে তাঁর সাথে বসে “পরাণ” দেখব। আমরা ছবিটা দেখব, বাবা-মেয়ে গল্প করব। আমাকে কেউ একটু জোগাড় করে দিন প্লিজ। আমরা তাঁর সঙ্গে সিনেমা দেখব।’
সিনেমাটির পরিচালক রায়হান রাফি গতকাল রাতেই ফেসবুকে পোস্ট করে নাম-পরিচয় না জানা লুঙ্গিপরা সেই ব্যক্তিকে খুঁজছেন। একজন পরিচালক হিসেবে তিনি ব্যথিত। তিনি বলেন, ‘আমরা সেই বাবাকে খুঁজছি। তাঁর সঙ্গেই আমরা সিনেমাটি দেখব। তিনি অবশ্যই লুঙ্গি পরে সিনেমাটি দেখবেন। আর লুঙ্গি পরে সিনেমা দেখা যাবে কি না, সেটাও আমরা জানার চেষ্টার করছি। যদি নিয়ম না থাকে, তাহলে অবশ্যই অনুরোধ করব, লুঙ্গি পরে দশকদের সিনেমা দেখতে দিন। দেশের বেশির ভাগ মানুষই লুঙ্গি পরে। এটা আমাদের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের সঙ্গে জড়িত পোশাক।’

পরিচালক আদনান আল রাজীব, আশফাক নিপুন, অভিনেত্রী সুনেরা বিনতে কামালসহ অনেকেই এ ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করেছেন। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়ে চলচ্চিত্রের একটি গ্রুপে কামাল নামের একজন মন্তব্য করেছেন, ‘গরিব লোক, ছোটলোকের পোশাক যদি হয়ও, তাহলে কি তাদের অধিকার নেই টাকা দিয়ে কোনো পরিষেবা পাওয়ার? টাকা দিয়েই তো পরিষেবাটা নিতে চাওয়া হচ্ছে, ফ্রি তো আর চাইছে না। আমি ধিক্কার জানাই।’

default-image

ঈদের পর মুক্তি পেয়েছে ‘পরাণ’ সিনেমা। দেশে ঘটে যাওয়া একটি সত্য ঘটনার ছায়া অবলম্বনে ত্রিভুজ প্রেমের গল্প সিনেমায় তুলে ধরা হয়েছে। ‘পরাণ’ ছবিতে প্রধান তিন চরিত্রে অভিনয় করেছেন শরীফুল রাজ, বিদ্যা সিনহা মিম ও ইয়াশ রোহান। এ ছাড়া অভিনয় করেছেন শহীদুজ্জামান সেলিম, রোজী সিদ্দিকী, লুৎফর রহমান জর্জ, রাশেদ মামুন অপু, মিলি বাশারসহ অনেকে।

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন