default-image

বিয়েতে দুই পরিবারের সবাই অনেক খুশি জানিয়ে পূর্ণিমা আরও বলেন, ‘দুই পরিবারের ইচ্ছাতেই তো বিয়েটা হলো, সবাই খুশি। আমার মেয়েসহ সবাইকে শ্বশুরবাড়ির লোকজন গ্রহণ করে নিয়েছেন, খুবই আদর করছেন। আমার মা–ও সবাইকে সুন্দরভাবে গ্রহণ করে নিয়েছেন।’

default-image

বিয়ে তো হলো। তবে নতুন জীবন শুরুর পর অসুস্থতার কারণে একসঙ্গে ঘুরতে যেতে পারেননি পূর্ণিমা-রবিন দম্পতি। অভিনেত্রী বলেন, ‘মাঝখানে পরিবারের সবাই এত অসুস্থ ছিলাম...প্রত্যেকের জ্বর ছিল যে কোনো পরিকল্পনা করা হয়নি। বিয়ের অনুষ্ঠানের পরপরই বাসার সবাই অসুস্থ হয়ে পড়ে।’

default-image

পূর্ণিমার এটা দ্বিতীয় বিয়ে। ২০০৭ সালের ৪ নভেম্বর আহমেদ জামাল ফাহাদের সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন পূর্ণিমা। ২০১৪ সালে কন্যাসন্তানের মা হন তিনি।

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন