জানা যায়, এবারের এ উৎসবে ৫৪ দেশের ৩০৪টি চলচ্চিত্র অংশ নিয়েছে। এর মধ্যে জুরিবোর্ডের বিচারে ৬৫টি বিভাগে পুরস্কার দেওয়া হয়েছে। এসব পুরস্কারের মধ্যে সবার ওপরে জায়গা করে নিয়েছে বাংলাদেশের ‘রিকশা গার্ল’।

খবরটি নিশ্চিত করে অমিতাভ রেজা বললেন, ‘অনেকে হয়তো জানেন না, রিকশা গার্ল বাচ্চাদের সিনেমা। এ পর্যন্ত আমাদের ঝুলিতে যত পুরস্কার এসেছে, এর সবই শিশু চলচ্চিত্র উৎসব থেকে। এর মধ্যে জার্মানির ‘শ্লিঙ্গেল ইন্টারন্যাশনাল চিলড্রেন ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল’ ও ব্রাসেলস ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল থেকে পুরস্কার পেয়েছি। ছবিটি মূলত ১০ থেকে ২০ বছর বয়সীদের জন্য বানানো। যাহোক, এবারও উৎসব থেকে সেরার পুরস্কার পেলাম। গত শনিবার সকালেই খবরটি জানতে পেরে ভীষণ ভালো লেগেছে।’

বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত ‘রিকশা গার্ল’ ছবিটি এরই মধ্যে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের চলচ্চিত্র উৎসবে পুরস্কৃত হওয়ার পাশাপাশি চলচ্চিত্র সমালোচকদের প্রশংসা কুড়িয়েছে। বাংলাদেশে এখনো মুক্তির অপেক্ষায় থাকা ‘রিকশা গার্ল’ অমিতাভ রেজার দ্বিতীয় চলচ্চিত্র। অমিতাভ রেজা জানান, শুধু চলচ্চিত্র উৎসব নয়, ছবিটিকে বাংলাদেশের প্রেক্ষাগৃহেও মুক্তি দিতে চান। প্রস্তুতিও শুরু করেছেন। নির্মাতা বলেন, ‘চলচ্চিত্র উৎসবে দেখানো হচ্ছে, ছবিটির ইংরেজি ভার্সন। আর দেশের জন্য তৈরি করেছি বাংলায়। এর মধ্যে সেটির কাজও একেবারে শেষ। আগামী বছরের প্রথম দিকে ছবিটি দেশের মানুষকে দেখাতে চাই।’

‘আয়নাবাজি’ সিনেমার মাধ্যমে দর্শকদের মন জয় করে নিয়েছিলেন অমিতাভ রেজা। এই পরিচালকের ‘রিকশা গার্ল’ নির্মিত হয়েছে ভারতীয় বংশোদ্ভূত যুক্তরাষ্ট্রের লেখক মিতালি পারকিনসের কিশোর সাহিত্য অবলম্বনে। ‘নাইমা’ নামের এক কিশোরীর জীবনযুদ্ধকে ঘিরে আবর্তিত হয়েছে এ ছবির গল্প। শিল্পী নভেরা রহমান সিনেমাতে ‘নাইমা’ চরিত্রে অভিনয় করেছেন। ছবিতে আরও অভিনয় করেছেন চম্পা, মোমেনা চৌধুরী, নরেশ ভূঁইয়া, অ্যালেন শুভ্র প্রমুখ।

ছবিটির চিত্রনাট্য লিখেছেন নাসিফ ফারুক আমিন ও শর্বরী জোহরা আহমেদ। বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত ‘রিকশা গার্ল’ সিনেমার প্রযোজকেরা হলেন জিয়াউদ্দিন আদিল, ফরিদুর রেজা সাগর ও এরিক জে অ্যাডামস।