দুই দশকের বেশি ধরে দেশের চলচ্চিত্রে অভিনয় করছেন শাকিব খান। একটা সময়ে ভারতীয় প্রযোজকেরা তাঁকে নিয়ে কলকাতার বাংলা চলচ্চিত্র তৈরি করেন। ‘শিকারি’, ‘নবাব’, ‘নাকাব’, ‘ভাইজান এলো রে’ ছবিগুলো শাকিবকে অন্য এক মাত্রায় নিয়ে যায়। প্রযোজকেরা পান ব্যবসায়িক সফলতাও। মঙ্গলবার জানা গেল, ভারতের পাশাপাশি পাকিস্তানের মানুষের কাছেও পৌঁছে গেছে তাঁর পরিচিতি। দেশটির অনেকেই তাঁকে চেনেন বাংলাদেশের সুপারস্টার এবং একজন সু-অভিনেতা হিসেবে।

রেহান ক্রিয়েশনস নামের একটি ইউটিউব থেকে শাকিব খানকে নিয়ে ভিডিওটি প্রকাশিত হয়েছে। সাড়ে সাত মিনিটের সেই ভিডিওতে দেখা গেছে, পাকিস্তানের তরুণ-তরুণীদের কাছে শাকিব খান সম্পর্কে  উপস্থাপক তাইবা আওয়ান নানা কিছু জানতে চাচ্ছেন। শাকিব খানের একটি স্থিরচিত্র হাতে নিয়ে তিনি ঘুরে ঘুরে সবার কাছে তা জানতে চান। ভিডিওতে দেখা গেছে, পাকিস্তানের তরুণ-তরুণীদের অনেকেই শাকিব খানকে চেনেন এবং তাঁর ছবির খোঁজখবর রাখেন। শুধু তা-ই নয়, শাকিব খানের ব্যক্তিজীবনের খবরও তাঁদের কাছে পৌঁছে গেছে।

শাকিবের স্থিরচিত্র দেখিয়ে উপস্থাপক তাইবা আওয়ান একজন তরুণীর কাছে জানতে চাইলেন, ছবির মানুষটিকে চেনেন? তরুণী সঙ্গে সঙ্গে বললেন, ‘তিনি বাংলাদেশের শাকিব খান। তাঁর সিনেমা আমার পছন্দ।’ শাকিব খানের কোন ছবিটি তাঁর প্রিয় বা দেখা জানতে চাইলে বললেন, ‘নাম্বার ওয়ান শাকিব খান’। একজন তরুণের কাছে জানতে চাইলে বললেন, তিনি শাকিব খান। কীভাবে চেনেন, উত্তরে ওই তরুণ বললেন, ‘তাঁর কিছু ছবি আমার দেখা হয়েছে। তিনি খুব ভালো অভিনেতা।’ একই প্রশ্নের জবাবে আরেকজন তরুণী বলেন, ‘হ্যাঁ, তাঁকে (শাকিব খান) চিনি। তিনি বাংলাদেশের একজন অভিনেতা।’ তার কোনো সিনেমা দেখা হয়েছে, জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি তাঁর সিনেমার ট্রেলার দেখেছি। এ ছাড়া খবরেও তাঁর কথা শুনেছি।’

তরুণ-তরুণীদের মধ্যে আরেকজন বললেন, ‘তিনি অনেক বড় তারকা। এটুকুই জানি, তবে কাজ দেখা হয়নি।’ অন্য একজন বলেন, ‘তাঁর নাম মনে নেই, তবে ফেসবুকে তাঁর সিনেমার অংশ দেখেছি।’ ভিডিওতে সবার বক্তব্য এটা স্পষ্ট, শাকিব খান ও তাঁর চলচ্চিত্র সম্পর্কে সেখানকার তরুণেরা খোঁজখবর রাখেন। শাকিবের ছবি দেখে আরেকজন তরুণী বলেন, ‘ছবির মানুষটাকে খুব সুন্দর লাগছে, আমার ক্রাশ হবে তার মতো ।’

৯ মাস যুক্তরাষ্ট্রে কাটিয়ে গত আগস্টে ঢাকায় ফেরেন শাকিব খান। ঢাকায় ফিরে এই ঢালিউড তারকা জানান, খুব শিগগিরই নতুন কয়েকটি ছবির শুটিং শুরু করবেন। এর মধ্যে কয়েকটি ছবির ঘোষণাও দেন তিনি। তবে আটকে থাকা ছবির শুটিং শেষ করে তবেই এসব ছবির শুটিংয়ে ফিরবেন বলে জানালেন শাকিব খান। তাই দেশে ফেরার কিছুদিন পর ‘লিডার: আমিই বাংলাদেশ’ ও ‘আগুন’ চলচ্চিত্রের শুটিংয়ে অংশ নিয়েছেন। একই সঙ্গে তাঁর প্রতিষ্ঠান থেকে তৈরি হতে যাওয়া ‘মায়া’ (সম্ভাব্য নাম), ‘রাজকুমার’, ‘কবি’ চলচ্চিত্রের প্রি-প্রোডাকশনের কাজ চলছে। একই সঙ্গে এসকে ফিল্মস ও কপ ক্রিয়েশনসের ‘শের খান’ এবং এসকে ফিল্মস ও বিগ স্ক্রিনের যৌথ প্রয়াস ‘প্রেমিক’-এর প্রি-প্রোডাকশনের কাজ চলছে।