হলের গেট খোলার অপেক্ষায় তাঁরা। উৎসবে সবার জন্য উন্মুক্ত এবং ছবি দেখতে পারবে বিনা মূল্যে। যে আগে আসবে সেই দেখতে পারবে ছবিটি। ছবিটি কেউ মিস করতে চান না, তাই তো সকাল সকাল এসে দাঁড়িয়ে আছেন দর্শক।

এর আগে গতকাল রাতে ছবি প্রদর্শনের সময়সূচি জানিয়ে চঞ্চল চৌধুরী একটি ফেসবুকে পোস্ট করেন। সেখানে জানানো হয় ছবিটি আজ শনিবার বেলা ১টায় এবং সন্ধ্যা ৬টায় নন্দন-১ প্রদর্শিত হবে। এরপরের দুটি প্রদর্শন ৩১ অক্টোবর ও ২ নভেম্বর নন্দন-২–এ সন্ধ্যা ৬টায় দেখানো হবে।

আজ কলকাতায় ‘৪র্থ বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উৎসব’ শুরু হতে যাচ্ছে। বাংলাদেশ সরকারের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে এবং কলকাতার বাংলাদেশ উপহাইকমিশনের ব্যবস্থাপনায় চলচ্চিত্র উৎসবটি চলবে আগামী ২ নভেম্বর পর্যন্ত। প্রতিদিন দুপুর ১২টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত কলকাতার ঐতিহাসিক প্রেক্ষাগৃহ নন্দন-১, ২ ও ৩ হলে বাংলাদেশি চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে। এ সময় এই হলগুলো দর্শকদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

আজ বিকেল চারটায় কলকাতার রবীন্দ্রসদনে উৎসবের উদ্বোধন করা হবে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন বাংলাদেশের তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। বিশেষ অতিথি থাকবেন জনপ্রিয় চলচ্চিত্র পরিচালক গৌতম ঘোষ। উৎসবে ‘হাওয়া’, ‘পরাণ’, ‘গুণিন’, ‘বিউটি সার্কাস’, ‘শাটল ট্রেন’সহ বাংলাদেশের ৩৭টি চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে।