যদিও মুক্তির অপেক্ষায় থাকা তিন ছবির নায়িকা সালওয়া সিনেমায় যে অভিনয় করবেন, কোনো দিনই ভাবেননি। সিলেটের মেয়ে সালওয়া ২০১৮ সালে মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ প্রতিযোগিতায় প্রথম রানারআপ হন।

default-image

কিছুদিন পরই পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করেন। কিন্তু সিনেমায় অভিনয়ে রাজি ছিলেন না। পরিচালকের অনুরোধ, ছবির গান ও গল্প শোনার পর মত দেন। সেই গল্প শোনা যাক সালওয়ার মুখ থেকেই, ‘তখন আমি সিলেটে। মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্বে জয়ীদের ছবি গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়। সেই ছবি দেখেই পরিচালক ফোন করে এমন করে ধরলেন, ঢাকায় এসে ছবির গল্প শুনলাম। মনে হলো, অন্তত একটা সিনেমা করি।’
সালওয়ার পর ২৩ সেপ্টেম্বর আরেক নতুন নায়িকা দেখবে ঢালিউড। মুক্তি পাচ্ছে দীপংকর দীপনের অপারেশন সুন্দরবন। ছবিতে মনোজ প্রামাণিকের বিপরীতে অভিনয় করেছেন সামিনা বাসার। প্রথম ছবিটি নিয়ে সালওয়ার মতোই অম্লমধুর অনুভূতির মধ্য দিয়েই যাচ্ছেন সামিনা, ‘বড় পর্দায় অভিষেক আমার জন্য অত্যন্ত আনন্দের। তবে ভয়ও পাচ্ছি। তবে এই ছবি আমার জীবনে বিশেষ কিছু হয়ে থাকবে। কারণ, প্রথম ছবি মুক্তি নিয়ে এত বড় আয়োজন, এত বড় টিমের সঙ্গে কাজের সুযোগ পেয়েছি, আমি ধন্য।’

মুক্তির আগে অপারেশন সুন্দরবন টিমের সঙ্গে সামিনা বাসারও প্রচারে অংশ নিচ্ছেন। ঢাকা ও ঢাকার বাইরে কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় ঘুরছেন।

default-image

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘সিনেমা যে এত বড় ব্যাপার, প্রচারে এসে টের পাচ্ছি। সিনেমার প্রতি দর্শকের আবেগের জায়গাটাই ভিন্ন।’ ছবিতে পাখি চরিত্রে অভিনয় করেছেন সামিনা। সুন্দরবন–সংলগ্ন এলাকার স্থানীয় একটি মেয়ের চরিত্র এটি। নিজের চরিত্র নিয়ে তিনি বলেন, ‘ওখানকার স্থানীয় মেয়ের চরিত্র করা আমার জন্য সহজ ছিল না। কিন্তু পরিচালকসহ পুরো টিম সহযোগিতা করছে। সবার কাছে কৃতজ্ঞ।’ নতুন কুঁড়ির শিশুশিল্পী সামিনা বাসারের অভিনয় ও নাচের সঙ্গে সখ্য ছোটবেলা থেকেই। বড় হয়ে সিনেমা করবেন, তখন থেকেই স্বপ্ন বুনছিলেন।
২০১৯ সালে ভারতের চণ্ডীগড় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ব্যাংকিং অ্যান্ড ইনস্যুরেন্সে স্নাতকোত্তর শেষ করে নাটকে কাজ শুরু করেন। এর মধ্যে এক বান্ধবীর কাছ থেকে জানতে পারেন, অপারেশন সুন্দরবন ছবির একটি বিশেষ চরিত্রের নারী অভিনয়শিল্পী খোঁজা হচ্ছে। ব্যস, অডিশনের দু-তিন দিন পরই সবুজ সংকেত পেলেন।
প্রথম ছবির শুটিং শেষ করেই জাজ মাল্টিমিডিয়ার দুটি সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ হন সামিনা। এর মধ্যে মনার শুটিং শেষ। বারুদ নামে আরেকটি ছবির শুটিং চলতি বছরই হওয়ার কথা। রোশানের বিপরীতে এবার তোরা মানুষ হ নামে একটি ওয়েব ফিল্মে অভিনয় করেছেন তিনি।

অন্যদিকে ৩০ সেপ্টেম্বর রফিক সিকদারের ‘বসন্ত বিকেল’ দিয়ে নায়িকা হিসেবে অভিষেক হচ্ছে সুবাহরও। ছবির মুক্তি উপলক্ষে এরই মধ্যে প্রচারে নেমেছেন তিনি। সুবাহ বলেন, ‘সিনেমা বড় মাধ্যম। দর্শকের আগ্রহ বেশি। দর্শকের কাছে কতটা গ্রহণযোগ্যতা পাব, এটা নিয়ে কিছুটা চিন্তা হচ্ছে।’ তবে ছবিটি নিয়ে আশাবাদী সুবাহ, ‘মৌলিক গল্পের ছবি এটি। কাজটিও ভালো হয়েছে। প্রচার ভালো হলে ভালো সাড়া পাওয়া যাবে।’

default-image

ছোটবেলা থেকেই সিনেমার নায়িকা হওয়ার ইচ্ছা ছিল রংপুরের মেয়ে সুবাহর। কিন্তু পরিবারের খুব একটা সমর্থন ছিল না। সুবাহ থেমে থাকেননি। ২০১৭ সালের দিকে মডেলিং শুরু করেন। পাশাপাশি চলে গানের চর্চাও। ২০১৮ সালে সংগীতা থেকে ‘চল মেলায়’ শিরোনামে একটি গান প্রকাশিত তাঁর। এরপর সিনেমার গানে ডাক আসে। মোহাম্মদ আসলামের সমাধান-এ প্লেব্যাক করতে গিয়েই নায়িকা হয়ে গেলেন। সুবাহ বলেন, ‘প্রথম গান প্রকাশের পর থেকে বেশ কিছু প্লেব্যাকে ডাক আসে। আসলাম ভাইয়ের ছবির গান গাইতে গেলে তিনি নায়িকা হওয়ার প্রস্তাব দেন। আমিও রাজি হয়ে যাই। তবে প্লেব্যাক আর করা হয়নি।’
বসন্ত বিকেল ছাড়াও সুবাহর আরও চার ছবি মুক্তির অপেক্ষায়—‘মন বসেছে পড়ার টেবিলে’, ‘সমাধান’, ‘আমার সিদ্ধান্ত’ ও ‘তোকে কত ভালোবাসি’। ‘বসন্ত বিকেল’ তাঁর শুটিং করা তৃতীয় ছবি হলেও প্রথমে মুক্তি পাচ্ছে।

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন