বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদ দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন প্রদক প্রদান করে আসছে। সেগুলোর মধ্যে রয়েছে ‘গোলাম মুস্তাফা আবৃত্তি পদক’, ‘বৃষ্টি-দোলা পদক’, ‘কামরুল হাসান মঞ্জু পদক’

লিখিত বক্তব্যে পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মো. আহ্কাম উল্লাহ্ বলেন, ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ বাংলার শ্রেষ্ঠ কবিতা আর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সেই কবিতার কারণে শ্রেষ্ঠ কবি ও আবৃত্তিশিল্পী। তাই স্বাধীনতার এই মহানায়কের নামে জাতীয় আবৃত্তি পদকটি প্রবর্তন করা হয়েছে। পদক প্রবর্তনে অনুমোদনসহ প্রয়োজনীয় আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করতে পরিষদ কয়েক মাস ধরে কাজ করেছে। জাতীয় পদক প্রবর্তনের অনুমোদন পাওয়ার পর জাতির জনকের নামে পদকটি প্রদানের জন্য জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেমোরিয়াল ট্রাস্টেরও অনুমোদন পেয়েছে বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদ। ট্রাস্টের সভাপতি বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন পরিষদের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বেলায়েত হোসেন, রফিকুল ইসলাম, রেজীনা ওয়ালী লীনা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আজহারুল হক আজাদ, মাসুদুজ্জামান, রাশেদ হাসান, কাজী মাহতাব সুমন প্রমুখ।

default-image

বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদ দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন প্রদক প্রদান করে আসছে। এর অন্যতম ‘গোলাম মুস্তাফা আবৃত্তি পদক।’ এই পদকে ভূষিত হয়েছেন ওয়াহিদুল হক, নরেন বিশ্বাস, নাজিম মাহমুদ, আশরাফুল আলম, আসাদুজ্জামান নূর, ভাস্বর বন্দ্যোপাধ্যায়, নিরঞ্জন অধিকারী, কামরুল হাসান মঞ্জু, পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায়, কেয়া চৌধুরী প্রমুখ। তরুণ আবৃত্তিশিল্পীদের জন্য বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদ প্রদান করে ‘বৃষ্টি-দোলা পদক’। সাংগঠনিক আবৃত্তিচর্চাকে উত্সাহিত করতে বছরের সেরা আবৃত্তি প্রযোজনার জন্য সম্প্রতি ‘কামরুল হাসান মঞ্জু পদক’ প্রবর্তন করেছে বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদ। এসবের সঙ্গে আবৃত্তিশিল্পে সার্বিক অবদানের জন্য গুণী শিল্পীদের নিয়মিত ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব জাতীয় আবৃত্তি পদক’ প্রদান করা হবে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদ।

নাটক থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন