বোঝে না সে বোঝে না ধারবাহিকে অভিনয় করেছেন অরণ্য চরিত্রে যশ ও পাখি চরিত্রে মধুমিতা
বোঝে না সে বোঝে না ধারবাহিকে অভিনয় করেছেন অরণ্য চরিত্রে যশ ও পাখি চরিত্রে মধুমিতাসংগৃহীত

সালটা ২০১৪। সেবার ঈদে ‘পাখি ড্রেস’ কেনার ধুম পড়ে গিয়েছিল। এই পোশাক না কিনে দেওয়ায় অনেকে অভিমান করেছিলেন স্বামীর ওপর। স্কুলের খাতায় আঁকা পাখি, ভাবিদের আড্ডায় পাখি। ভারতীয় বাংলা টিভি ধারাবাহিক ‘বোঝে না সে বোঝে না’র চরিত্র পাখি মন কেড়ে নিয়েছিল বাংলা ভাষাভাষী নারীদের। সেই ধারাবাহিকের পাখি চরিত্রের মধুমিতা সরকার ও অরণ্য চরিত্রের যশ দাশগুপ্ত একসঙ্গে আসছেন বড় পর্দায়।

default-image

স্টার জলসার এই ধারাবাহিকের সুবাদে তারকা তকমা জুটে যায় যশ ও মধুমিতার কপালে। সেই জনপ্রিয়তাকে পুঁজি করেই বড় পর্দায় এই জুটিকে যুক্ত করেছেন নির্মাতা। কলকাতার নামী প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান শ্রী ভেঙ্কটেশ ফিল্মসের (এসভিএফ) নতুন একটি ছবিতে দেখা যাবে এই জুটিকে। এসভিএফের হাত ধরেই রুপালি পর্দায় অভিষেক হয়েছিল দুজনের, তবে আলাদা আলাদা। ২০১৬ সালে ‘গ্যাংস্টার’ ছবি দিয়ে যশ আসেন রুপালি পর্দায়। আর মধুমিতার অভিষেক হলো চলতি বছরে। ‘লাভ আজ কাল পরশু’ দিয়ে।

default-image
বিজ্ঞাপন

যদিও গত বছর সৌমিক হালদারের পরিচালনায় যশ-মধুমিতার একটি ছবিতে কাজ করার কথা শোনা যায়। কিন্তু সেটি পরে গুঞ্জনে রূপ নেয়। এবার হয়তো কথায় সীমাবদ্ধ থাকবে না। এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান দিয়ে যশের যাত্রা শুরু হলেও সুরিন্দর ফিল্মস, জারেক এন্টারটেইনমেন্টের ব্যানারেও কাজ করেছেন যশ।

default-image


এদিকে মধুমিতা সরকার কেবল বড় পর্দায় শুরু করেছেন পথচলা। বড় পর্দার শুরুতেই নিজেকে তুলে ধরতে না পারলেও ‘বোঝে না সে বোঝে না’র ‘পাখি’ আর ‘কুসুম দোলা’র ‘ইমন’ এখনো দারুণ জনপ্রিয় ভক্তদের মধ্যে।


পর্দায় যশ ও মধুমিতার রসায়ন দর্শকের পছন্দ হলেও বাস্তবে তাঁদের সম্পর্ক খুব একটা ভালো নয়। তাঁরা নাকি খুব ভালো বন্ধুও নন। পেশাদার সম্পর্ক বজায় রেখে কাজ করেন সব সময়। যশ-মধুমিতার নতুন এই ছবি নিয়ে এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানায়নি এসভিএফ। যশ ও মধুমিতা কেউ-ই এ বিষয়ে মুখ খুলতে চাননি।

default-image
মন্তব্য করুন