বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদ্‌যাপন উপলক্ষে নাটকটি লিখেছেন মাহফুজা হিলালী। নির্দেশনা দিয়েছেন আমিনুর রহমান। নাটকে অভিনয় করেছেন ৮৫ শিল্পী।

default-image

নাট্যকার মাহফুজা হিলালী বলেন, বুদ্ধিজীবী হত্যা হয়েছিল—এ কথা সবাই জানেন, কিন্তু অনেকেই জানেন না, বাঙালি জাতিসত্তাকে বিশ্বের বুকে প্রতিষ্ঠিত করতে তাঁরা কী কী করেছিলেন। বাংলা ভাষা রক্ষা এবং বাংলাদেশ গঠনে তাঁদের অক্লান্ত পরিশ্রম ও সচেতন প্রয়াসের কথাও জানেন না অনেকে। মুক্তিযুদ্ধ, বুদ্ধিজীবী, গণহত্যা, স্বাধীনতা—এই শব্দগুলো এখন সর্বত্র প্রবাহিত হচ্ছে, কিন্তু এর গভীরতা কতটুকু, তা পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে না নতুন প্রজন্ম এবং সাধারণ মানুষের কাছে। সংগত কারণে দেশপ্রেম ও মূল্যবোধের শিকড় থেকে ছিটকে পড়ছে মানুষ। ‘চোখ বাঁধা মাইক্রোবাস ও শূন্যতার গল্প’ নাটকে দেশপ্রেম ও মূল্যবোধের সুগভীর তল ও মূল শিকড় খোঁজার চেষ্টা করা হয়েছে।

বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক নাট্যজন লিয়াকত আলী লাকীর ভাবনা ও পরিকল্পনায়, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শতবর্ষ উদ্‌যাপন উপলক্ষে দেশের ৬৪ জেলার ৬৫টি বধ্যভূমিতে মঞ্চায়িত হচ্ছে গণহত্যার পরিবেশ থিয়েটারের নাটক। এ পর্যন্ত সারা দেশে ১৬টি জেলায় নাটক প্রদর্শিত হয়েছে।

default-image

আয়োজনটি প্রসঙ্গে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী বলেন, ‘পরিবেশ নাটক হলো প্রচলিত প্রেক্ষাগৃহের বাইরে গিয়ে অন্যত্র নাটক মঞ্চায়ন। এ পদ্ধতিতে যেকোনো স্থানে মঞ্চায়নের উপযোগী পরিবেশ সৃষ্টি করে নাট্য পরিবেশনা সম্ভব। বাংলাদেশে এ ধারণা ভিন্নমাত্রা পেয়েছে। যেখানে ঘটনা সংঘটিত হয়েছে, ঠিক সেখানেই নাটক মঞ্চস্থ করে পরিবেশ থিয়েটার প্রকৃত অর্থে পরিবেশবাদী হয়ে উঠেছে। মুক্তিযুদ্ধে সংঘটিত গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি আদায়ে এ কর্মসূচি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলে আমরা আশাবাদী।’ ইতিমধ্যে মেহেরপুর, সাতক্ষীরা, লালমনিরহাট, ফেনীতে যুদ্ধস্মৃতিবিজড়িত এলাকার গণহত্যা নিয়ে নাটক পরিবেশিত হয়েছে।

নাটক থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন