‘হে উৎসুক দৃষ্টিপাত, এ তীর্থে আসো যদি হে শ্রীজ্ঞান, কায়ায় কায়ায় সৃজিব/ নব নব জীবনের মানুষ-রূপ-আখ্যান’ প্রতিপাদ্যে আট দিনের এ উৎসবের আয়োজন করেছে ঢাবি থিয়েটার অ্যান্ড পারফরম্যান্স স্টাডিজ বিভাগ। মুনীর চৌধুরীর কবর নাটক দিয়ে শুরু হবে উৎসব। নাটকটি নির্দেশনা দিয়েছেন তানভীর আহম্মেদ। একই দিন সন্ধ্যায় মঞ্চস্থ হবে ক্যাম্প। মুহম্মদ জাফর ইকবালের ক্যাম্প–এর নাট্যরূপ দিয়েছেন শংকরকুমার বিশ্বাস, নির্দেশনা দিয়েছেন দীপম সাহা।

উৎসবে এবার পাঁচটি মৌলিকসহ সাতটি বাংলা ও তিনটি পশ্চিমা নাটক প্রদর্শিত হবে। এই নাটকগুলো একই সঙ্গে যেমন বাংলা ভাষাভাষী মানুষের দর্শন, আর্থসামাজিক সাংস্কৃতিক প্রবাহ তুলে ধরবে, তেমনি বিশ্বনাট্যের নানা শৈলী ও রূপরীতির সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেবে।
থিয়েটার অ্যান্ড পারফরম্যান্স স্টাডিজ বিভাগের চেয়ারম্যান আশিকুর রহমান

নাট্যোৎসব উদ্বোধন করবেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রোভিসি (শিক্ষা) এ এস এম মাকসুদ কামাল ও কলা অনুষদের ডিন আবদুল বাছির। সভাপতিত্ব করবেন থিয়েটার অ্যান্ড পারফরম্যান্স স্টাডিজ বিভাগের চেয়ারম্যান আশিকুর রহমান।

উৎসবে এবার পাঁচটি মৌলিকসহ সাতটি বাংলা ও তিনটি পশ্চিমা নাটক প্রদর্শিত হবে। বিভাগের চেয়ারম্যান আশিকুর রহমান মনে করেন, এই নাটকগুলো একই সঙ্গে যেমন বাংলা ভাষাভাষী মানুষের দর্শন, আর্থসামাজিক সাংস্কৃতিক প্রবাহ তুলে ধরবে, তেমনি বিশ্বনাট্যের নানা শৈলী ও রূপরীতির সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেবে।