সিলেট-সুনামগঞ্জ হাওরাঞ্চলের মানুষের দীর্ঘদিনের বিশ্বাস–অবিশ্বাসের দ্বন্দ্ব গল্পে তুলে ধরা হয়েছে। এটি রচনা করেছেন মুরাদ খান। নাটকটির নির্দেশক আজাদ আবুল কালাম বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতি ও অন্যান্য কারণে প্রায় সাড়ে তিন বছরের বিরতি দিয়ে আজ শুক্রবার নাটকটি মঞ্চে আসছে। কিছুটা দেরি হলেও আমরা খুশি নাটকটি দর্শকদের সামনে আনতে পেরে। আবার নিয়মিত শো করার চিন্তাভাবনা রয়েছে।’

নাটকের গল্পে দেখা যাবে, অনেক দিন আগে কইন্যা পীর কালারুকায় এসেছিলেন। কালারুকার মানুষের এখনো বিশ্বাস, কইন্যা পীর তাদের দেখে রাখেন। গল্পে এগোলে জানা যায়, দুই গ্রামের বিচ্ছিন্নতার প্রতীক একটি খাল। যার নাম চেঙ্গের খাল। চেঙ্গের খালের পশ্চিমপারের সাহেবজাদার ধর্মচিন্তা। পূর্বপারের কালারুকার নাইওর আলীর ধর্মচিন্তা থেকে আলাদা। তিনি চান ওই পারে কালারুকায় তাঁর প্রভুত্ব প্রতিষ্ঠা করতে। এমন গল্প নিয়ে এগিয়ে গেছে ‘কইন্যা’ নাটকের কাহিনি।

নাটকে অভিনয় করছেন আজাদ আবুল কালাম, সাখাওয়াত হোসেন, তৌফিকুল ইসলাম, শতাব্দী ওয়াদুদ, সাহানা সুমি, শাহেদ আলী, সানজিদা প্রীতি, রাহুল আনন্দ, বিলকিস জবা, তপন মজুমদার প্রমুখ।

নাটকের অভিনেতা শাহেদ আলী বলেন, ‘মঞ্চ নাটক সব সময়ই টানে। আসলে মঞ্চই আসল জায়গা। সেখানে “কইন্যা” নাটকের সঙ্গে যুক্ত থাকা, আবার ফেরা আনন্দের।’ তিনি জানান, ২০১৯ সালের ১৬ মার্চ ঢাকায় সর্বশেষ শো হয়েছিল।