তিনি জানান, ভাবোখালী গ্রামের মানুষ সহজ-সরল। ঘুড়ি, পালাগানসহ ঐতিহ্যবাহী সব আয়োজনে অতিবাহিত হয় তাদের দিন। একবার তারা পালাগানের আয়োজন করে। পালা করতে কলকাতা থেকে আসে চিনু গায়েন। পালাগানে সবাইকে মুগ্ধ করে সবার মন জয় করে নেয় চিনু। নিজের অজান্তেই চিনুর প্রেমে পড়ে জ্যোৎস্না। চিনুর সঙ্গে জ্যোৎস্নার বিয়ে হয়ে যায়। বিয়ে করে জ্যোৎস্নাকে নিয়ে চিনুর কলকাতায় চলে যাওয়ার কথা। কিন্তু জ্যোৎস্নার স্থান হয় বেনাপোল সীমান্তবর্তী অঞ্চলের প্রভাবশালী সংস্কৃতি অনুরাগী, যাত্রাদলের পৃষ্ঠপোষক রশিদ কোম্পানির হোটেলে। সেখানে চিনুর নতুন চেহারা উন্মোচিত হয়। কলকাতায় পাচারের উদ্দেশ্যেই আসলে জ্যোৎস্নাকে বিয়ে করে চিনু।

২২ বছর ধরে দেশ নাটকের হয়ে মঞ্চে অভিনয় করছেন ফাহিম মালেক। এবার দেশ নাটকের হয়ে প্রথমবারের মতো এলেন নির্দেশনায়। ফাহিম মালেক বলেন, এখানে নাটকের নাম ‘পারাপার’ হওয়ার কারণ হচ্ছে, নাটকের প্রধান চরিত্র চিনু গায়েন। যে কিনা আসলে গায়েন রূপে নারী পাচারকারী। অনেকেই আছেন, শিল্পকে লেবাস হিসেবে ব্যবহার করে আড়ালে অপকর্ম করেন। এটিকে তিনি বলছেন, ‘শিল্পের আড়ালে শকুন।’ নাটকে অনেকগুলো গান ব্যবহার করেছেন নির্দেশক। গানে গানে গল্পটা বলতে চেয়েছেন তিনি।

‘পারাপার’ দেশ নাটকের ২৪তম প্রযোজনা। বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করছেন কামাল আহমেদ, অসীম কুমার নট্ট, কাজী রাজু, গোলাম মাহমুদ, আশরাফুল আশীষ, মাঈন হাসান, আরিফ হক, কাজী লায়লা বিলকিস, সোমা ফেরদৌসী, ইসমত জেরিন, তানহা, ব্রততী, ইব্রাহিম, লিমন, শাহেদ, সজীব, সবুজ, বাদশা, নাঈম, নাইমুর, নাভিদ, সাজ্জাদ, শামীম প্রমুখ। পোশাক পরিকল্পনা করেছেন সাজিয়া আফরিন, মঞ্চ পরিকল্পনায় ছিলেন কাজী কোয়েল।