default-image

‘আষাঢ়স্য প্রথম দিবসে’ নাটকটি রচনা করেছেন মোহন রাকেশ। অনুবাদ করেছেন অংশুমান ভৌমিক। ‘প্রকৃতি ও প্রেম কেমন হাত ধরাধরি করে চলে, প্রেম কীভাবে শিল্প সৃষ্টির রসদ জোগান দেয়, প্রেম কত আদরে-যতনে-অপেক্ষায়-উপেক্ষায় ধ্রুবতারার মতো জীবনের আঙিনায় জেগে থাকে—এমন অনেক গহন অবগাহনের ডাক পাঠায় এ নাটক। আলোকিত হয় শিল্পীর সঙ্গে রাষ্ট্রের সম্পর্কের বহু জানা-অজানা দিক। এমনকি রাষ্ট্রীয় অনুগ্রহ আর চিন্তার স্বাধীনতার মতো স্পর্শকাতর প্রসঙ্গও।’ কথাগুলো নাট্যকার অংশুমান ভৌমিকের। ‘আষাঢ়স্য প্রথম দিবসে’ নাটক প্রসঙ্গে লিখেছিলেন তিনি।

default-image

নির্দেশক অলোক বসু জানান, নাটকে কবি কালিদাসের জীবনের এক বিচিত্র পর্ব তুলে আনা হয়েছে। একজন কবি থেকে রাষ্ট্রনায়ক হিসেবে কালিদাসের আবির্ভাব, তাঁর জীবনে প্রেম, প্রকৃতি উঠে এসেছে। পাশাপাশি ক্ষমতার সঙ্গে সৃজনশীলতার যে দ্বন্দ্ব এবং সেই দ্বন্দ্ব থেকে বেরিয়ে এসে কবি কালিদাস কীভাবে কবিতার কাছে ফিরে আসতে চেয়েছেন, তা অত্যন্ত হৃদয়স্পর্শীভাবে উঠে এসেছে এই নাটকে। নির্দেশক বলেন, ‘যাঁরা কবি কালিদাসকে জানেন, তাঁর কাব্য ও নাটকের খোঁজ রাখেন, কিংবা এসব কিছুরই খবর রাখেন না; তাঁরা সবাই অন্তত একটিবার আসতে পারেন। আশা করি ভালো লাগবে।’

এ নাটকে অভিনয় করেছেন সঞ্জিতা শারমীন, শামসুন নাহার, রামিজ রাজু, সুরভী রায়, হাসানুজ্জামান খান, আর কে এম মোহ্সেন, মিশাল সমাপ্ত, অলোক বসু, দীপু মাহমুদ, আশা আক্তার প্রমুখ

default-image

‘আষাঢ়স্য প্রথম দিবসে’ নাটকে আলোক পরিকল্পনা করেছেন ঠান্ডু রায়হান। মঞ্চ পরিকল্পনা করেছেন কামালউদ্দিন কবির। সংগীত, পোশাক ও দ্রব্যসামগ্রী পরিকল্পনা করেছেন যথাক্রমে রামিজ রাজু, মহসিনা আক্তার ও শামসুন নাহার। কোরিওগ্রাফি করেছেন আমিনুল আশরাফ।

নাটক থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন