তিনি আসবেন, নাকি আসবেন না—এমন প্রশ্নই কয়েক দিন ধরে ঘুরছিল সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। তাঁর আসা নিয়ে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় এবং জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) পাল্টাপাল্টি বক্তব্যে ধন্দে পড়েছিলেন দর্শকেরা। সব শঙ্কা উড়িয়ে অনুমতি নিয়েই ঢাকায় এলেন তিনি।
আয়োজক ইশরাত জাহান প্রথম আলোকে জানান, শনিবার সকালেই দেশে ফিরে যাবেন নোরা ফাতেহি।

নোরা ফতেহিকে ঢাকায় আনতে প্রথমে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেছিল উইমেন লিডারশিপ করপোরেশন; তবে ডলার-সংকটের কারণ দেখিয়ে নোরাকে ঢাকায় আনার অনুমতি দেওয়া হয়নি। পরে তথ্যচিত্রের কথা বলে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ে অনুমতি পেয়েছেন আয়োজকেরা। এর মধ্যে বেঁকে বসে এনবিআর।
আয়কর নিশ্চিত না করায় অনুষ্ঠানটি বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছিল এনবিআর। মাঝে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ও আপত্তি তুলেছিল। নানা নাটকীয়তা শেষে কাল রাতে নোরা ফাতেহিকে ঢাকায় আসার অনুমতি দিয়েছে সরকার।

‘সাকি সাকি’, ‘দিলবার’ গানে নাচ পরিবেশন করে ঝড় তোলা নোরা এ মুহূর্তে বলিউডের সেরা নারী নৃত্যশিল্পীদের একজন। আইটেম গানের শিল্পী হিসেবে নোরা বলিউডের বেশ কিছু ছবিতে নজর কেড়েছেন। সেগুলোর মধ্যে রয়েছে ‘কিক টু’, ‘শের’, ‘লোফার’, ‘সত্যমেব জয়তে’, ‘স্ত্রী’, ‘ভারত’, ‘বাটলা হাউস’। হিন্দির পাশাপাশি তেলেগু, মালয়ালম ও তামিল ছবিতেও নোরা ফাতেহির সরব উপস্থিতি নজর কাড়ে। কেবল বড় পর্দায় নয়, ছোট পর্দা ও মিউজিক ভিডিওতেও সমান জনপ্রিয় তিনি। ‘বিগ বস-৯ ’, ‘ঝলক দিখলা যা’, ‘কমেডি নাইটস’, ‘এমটিভি ট্রল পুলিশ’সহ অন্যান্য রিয়েলিটি শোতেও তাঁর পারফরম্যান্স নজরকাড়া।

মরক্কীয় বংশোদ্ভূত নোরার জন্ম ও বেড়ে ওঠা কানাডায়। ছোটবেলায় তিনি শাহরুখ খান ও হৃতিক রোশনের ভক্ত ছিলেন। আরবিতে ডাব করা তাঁদের অভিনীত সিনেমা দেখে বড় হয়েছেন নোরা। সেই থেকে স্বপ্ন, বলিউডে কাজ করবেন। কিন্তু রক্ষণশীল অভিভাবকের বাড়িতে সেটি ছিল প্রায় অসম্ভব। বলিউডে নাম লেখানোর স্বপ্ন নিয়ে ভারতে পা রেখেছিলেন।