বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এই ভালোবাসা দিবসের এত এত কাজ করছেন, আপনার কাছে ভালোবাসা মানে কী?

শান্তিপূর্ণ একটা ব্যাপার। আরামের একটা জায়গা।

আপনার সবচেয়ে আরামের জায়গাটা কোথায়?

আমার বাসায় (হাসি)। পৃথিবীতে ওটাই আমার সবচেয়ে বেশি আরামের জায়গা।

default-image

চরকিতে মুক্তি পাওয়া ‘বকুল ফুল’–এর কেমন প্রতিক্রিয়া পেয়েছেন?

দারুণ। বেশ ভালো ছিল। মানুষ দেখে ভালো বলেছে। কারণ, সব ধরনের ইমোশনের ব্লেন্ড থাকলে আমরা যেকোনো কাজ উপভোগ করি। ওই জায়গা থেকে সিম্পল স্টোরি টেলিং অ্যাট দ্য সেম টাইম একটা সুন্দর মেসেজ ছিল।

ওয়েবে ও টেলিভিশনের কাজে কোনো পার্থক্য পান?

কিছুটা তো আছে। আমার কাছে মনে হয়, ওয়েবের কাজ একটু যত্ন করে বানানো হয়। কারণ, বাজেট ভালো থাকে। তুলনামূলক গল্প বলার স্টাইলটাও ভিন্ন। টেলিভিশন নাটকে অনেক ধরনের গল্প দেখানো যায়ও না, ওয়েবে চাইলে হয়তো দেখাতে পারি, তবে সেটা অবশ্যই গল্পের প্রয়োজনে।

সামনে নতুন কী কী কাজকর্ম করছেন?

ওয়েবের জন্য সকাল আহমেদের নতুন একটি কাজ করব। শিহাব শাহীনের পরিচালনায়ও একটি কাজের পরিকল্পনা চলছে।

মাসে কত দিন শুটিং করেন?

আমি ব্রেক নিয়েই কাজ করি। একটানা কাজ করতে ভালো লাগে না। দুই দিন কাজ করে চার দিন ব্রেক নিই। টায়ার্ড হয়ে যাই। মেন্টালি অনেক ক্লান্ত হয়ে যাই। তা ছাড়া প্রস্তুতির জন্যও সময় লাগে।

default-image

নতুন করে সংসার নিয়ে কোনো চিন্তা আছে?

এখন যে রকম আছি, চলতে থাকবে। ভালোই তো আছি, চলুক না।

আপনার কাছে জীবন মানে কী?

জীবন মানে বেঁচে থাকা, সুস্থ ও সুন্দরভাবে। যদিও একটু ডিফিকাল্ট। অনেক চ্যালেঞ্জ থাকে, অনেক ফাইটও করতে হয়। একজনকে ভালো-খারাপ সবকিছুর মধ্য দিয়ে যেতে হয়—এটাই আসলে জীবন।

এনটিভিতে তো প্রচারিত হচ্ছে আপনার অভিনীত ‘মা–বাবা ভাই বোন’ নাটকটি।

সংসারের নানান টানাপোড়েন, হাসি-আনন্দ আর দ্বন্দ্ব এই ধারাবাহিকের মূল উপজীব্য। সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের ‘মা–বাবা ভাই বোন’ উপন্যাসটির মূল পটভূমি ঠিক রেখে সময় ও চিত্রনাট্যের প্রয়োজনে কিছুটা রূপান্তর করা হয়েছে। এই পরিচালকের সঙ্গে আগেও কাজ করেছি। নাটকের সহশিল্পীরাও চমৎকার। অনেক দিন আগে ‘নয়ছয়’ নামের পারিবারিক একটা গল্পের কাজ করেছিলাম। এরপর ‘বাকরখানি’ নামে আরেকটি কাজ করেছিলাম। পারিবারিক গল্পে দীর্ঘ বিরতির পর এই নাটকের কাজ করলাম।

আলাপন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন