শাকিব খান ও দর্শনা বণিক
শাকিব খান ও দর্শনা বণিককোলাজ : প্রথম আলো
১০ মার্চ ঢাকায় এসেছেন ভারতের কলকাতার অভিনেত্রী দর্শনা বণিক। বাংলাদেশের নির্মিতব্য ‘অন্তরাত্মা’ ছবিতে অভিনয় করছেন তিনি। ১১ মার্চ থেকে পাবনায় শুটিংয়ে অংশ নিয়েছেন তিনি। এই ছবিতে কাজের মধ্য দিয়ে প্রথমবার শাকিব খানের সঙ্গে অভিনয় করছেন তিনি। কথা রটেছে, অনুমোদন না নিয়েই এ দেশে কাজ করছেন তিনি। শাকিবের সঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতাসহ নানা বিষয়ে কথা হলো তাঁর সঙ্গে
default-image

বাংলাদেশের সিনেমায় কাজ করতে কেমন লাগছে?

ভীষণ ভালো লাগছে। এর আগেও একবার বাংলাদেশে এসেছিলাম। সেবার ‘অপারেশন সুন্দরবন’ ছবিতে কাজ করেছি। কিন্তু এই টিমের সঙ্গে প্রথম কাজ। তাড়াহুড়া করে বাংলাদেশে এসে শুটিংয়ে ঢুকে গেছি। টিমের সবার সঙ্গে ভালোভাবে কথা বলার সুযোগ হয়নি। তাই এক্সাইটমেন্টের সঙ্গে টেনশনও ছিল। তবে কয়েক দিন কাজের মাথায় টিমের সহযোগিতার কারণে কাজ করাটা সহজ হয়ে গেছে। যতই দিন যাচ্ছে, ততই শুটিং করতে সহজ বোধ করছি।

বিজ্ঞাপন

শুনেছি নির্ধারিত শিডিউলের বেশ কয়েক দিন পর বাংলাদেশে এসেছেন। এ নিয়ে পরিচালকসহ টিমের অনেকেই আপনার প্রতি বিরক্ত।

জানি না। আমার আসার কথা ছিল ৭ মার্চ। কিন্তু এসেছি ১০ মার্চ। আসার পর কারও ব্যবহারে সে রকম মনে হয়নি। আমি ঠিক সময়েই আসতে চেয়েছিলাম। মুম্বাইতে আমার একটি সিনেমার ডাবিং চলছিল। শেষ করে সেখান থেকে সরাসরি আসার কথা ছিল। কিন্তু ভিসা জটিলতার কারণে আসতে পারিনি। এই দেরি হওয়ায় আমার নিজের হাত ছিল না।

default-image

শাকিব খানের সঙ্গে কবে প্রথম দেখা হলো?

এই ছবিতে কাজ করতে এসেই প্রথম দেখা। তবে আগে থেকেই জানি তিনি বাংলাদেশের বড় তারকা। প্রথম দিন ছবির গানের শুটিং করতে গিয়ে তাঁর সঙ্গে দেখা হয়েছে। দারুণ একজন মানুষ শাকিব খান। খুবই সহযোগিতাপূর্ণ মানুষ। এরপর শাহেদ ভাইয়ের সঙ্গেও দৃশ্য করছি। তাঁকেও ভালো মনের মানুষ বলে মনে হয়েছে।

শুটিং ছাড়া শাকিবের সঙ্গে আড্ডা হয়নি?

হ্যাঁ, হয়েছে। আলাপ–আলোচনায় বাংলাদেশি সিনেমা, ভারতীয় সিনেমার বিভিন্ন দিক নিয়ে কথা হয়েছে আমাদের। কথা বলতে গিয়ে দেখলাম, সিনেমা ও সিনেমার বাইরের নানা বিষয়ে শাকিব খানের জানার আগ্রহ অনেক। জানতে ভালোবাসেন, নানা বিষয়ে কথা বলতে ভালোবাসেন।

default-image

শাকিব খানের কোন দিকটা আপনার ভালো লেগেছে?

শাকিব খান দেশ–বিদেশের সিনেমাসহ অনেক বিষয়ে খোঁজখবর রাখেন। এ ছাড়া বিভিন্ন বিষয়ে জানার আগ্রহও তাঁর বেশি। বিষয়টি আমার খুব ভালো লেগেছে। সিনেমা নিয়ে, তাঁর কাজ নিয়ে দারুণ প্যাশনেট তিনি। তা ছাড়া শাকিব খান দেখতে খুব সুন্দর।

default-image

বেশ কয়েক দিন হয়ে গেল শুটিংয়ে। বাংলাদেশে কাজের অভিজ্ঞতা কেমন?

খুবই ভালো। দ্রুতই কাজ হচ্ছে। যেভাবে শুটিংয়ের শিডিউল করা হয়েছে, পরিকল্পনা অনুযায়ীই কাজ শেষ হবে মনে হচ্ছে। কাজ করতে এসে মনে হয়েছে, বাংলাদেশের সিনেমা ইন্ডাস্ট্রি বেশ পেশাদার। তা ছাড়া আমাদের দুই বাংলার কাজের ধারা অনেকটা একই রকম।

দুই বাংলার সিনেমাকে কীভাবে দেখতে চান?

মাঝে বেশ কয়েক বছর যৌথ প্রযোজনায় ভালো ভালো সিনেমা তৈরি হচ্ছিল। হঠাৎ করেই স্লো হয়ে গেছে। আমাদের দুই বাংলার আর্ট–কালচার অলমোস্ট একই রকমের। আমি চাই, আবার দুই বাংলার যৌথ প্রযোজনায় ছবি তৈরি হোক। এভাবে কাজ হলে দুই বাংলায় ভালো ভালো ছবি করার একটা প্রতিযোগিতা তৈরি হবে। কাজের মধ্য দিয়ে দুই বাংলার মানুষের বন্ধন আরও দৃঢ় হবে। সিনেমার ব্যবসা বাড়বে। বড় বড় প্রযোজক এখানে নিরাপদে বিনিয়োগ করতে আসবেন।

বিজ্ঞাপন

টলিউডের বর্তমান সময়ের অনেক জনপ্রিয় তারকা রাজনীতিতে নাম লিখিয়েছেন, নির্বাচনে নেমেছেন। রাজনীতিতে আপনি কবে নামছেন?

কোনো সম্ভাবনা নেই। প্রচুর সিনেমা, ওয়েব ফিল্ম ও ওয়েব সিরিজে কাজ করতে চাই। বলিডউ, টলিউড, ঢালিউড, দক্ষিণি—সব সিনেমাতেই কাজ করতে চাই।

আপনি বাংলাদেশে আসার আগে বলেছিলেন সুচিত্রা সেনের জন্মভিটা দেখতে যাবেন। গিয়েছিলেন?

পাবনায় শুটিং হওয়ার সুবাদে সেই সুযোগ তৈরি হয়েছে। তবে এসেই তো শুটিংয়ে ঢুকে গেছি। এখনো সুযোগ হয়নি। তবে অবশ্যই দেখতে যাব। অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছি। এ মাস পুরোই এখানে আছি। আবার কবে আসা হবে ঠিক জানি না। এ সুযোগ হাতছাড়া করব না।

default-image

দেশীয় চলচ্চিত্রে বিদেশি অভিনয়শিল্পীদের অংশগ্রহণ–সংক্রান্ত নীতিমালা অনুযায়ী দেশের বাইরের কোনো শিল্পী বাংলাদেশে সিনেমায় শুটিং করতে চাইলে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় থেকে ‘ওয়ার্ক পারমিট’ নিতে হয়। শুনেছি, আপনি ওয়ার্ক পারমিট না নিয়েই বাংলাদেশে শুটিং করতে এসেছেন।

না, না, আমি ওয়ার্ক পারমিট ছাড়া আসিনি। এ জন্যই একটু দেরি করে আসতে হয়েছে। এক মাসের ওয়ার্ক পারমিট ভিসা নিয়ে এখানে এসেছি। আর ব্যবস্থা করে দিয়েছেন ছবির প্রযোজক ও পরিচালক।

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় তো আপনার ওয়ার্ক পারমিটের বিষয়ে চূড়ান্ত করে কিছু জানায়নি বলে শুনেছি। তারা বলছে আবেদন জমা আছে।

তাহলে সবচেয়ে ভালো হয় ছবির প্রযোজক ও পরিচালকের সঙ্গে কথা বললে। কারণ, আমার পুরো বিষয়টি তাঁরাই দেখছেন।

আলাপন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন