এ ধরনের এক্সপেরিমেন্টাল কাজ করার পেছনে কোন ভাবনা কাজ করেছে?

এ মুহূর্তে রহস্য ধাঁচের ভেতরে সারা পৃথিবী। আমার কাছে মনে হয়েছে, এটার বাংলাদেশি সংস্করণটা দরকার। বিদেশি সংস্করণ দেখে বলছি, এটা ভালো, ওটা ভালো, আমাদের সংস্করণ দেখেও যেন কেউ বলে, এটা ভালো। একটা মোর স্পিরিচুয়াল জায়গা থেকে দুই দিনের দুনিয়া বানানো। আমাদের গল্পের মূল ভাবনা হচ্ছে, ক্রাইম অ্যান্ড পানিশমেন্ট, যেটার সঙ্গে আসলে সময়ের সম্পর্ক নেই। এটা সময়ের ঊর্ধ্বে, সব সময়ের গল্প। আজ থেকে ১০০ বছর, এক হাজার বছর এবং পাঁচ হাজার বছর আগেও ক্রাইম অ্যান্ড পানিশমেন্ট ছিল। পুরোপুরি রোবটে যদি পরিণত না হয়, তাহলে আরও অনেক দিন চলবে। বেসিক ইমোশন, বেসিক রিলেশনশিপের ভেতরে এই সময়ের পৃথিবীতে সবার আগ্রহের যে জায়গা, ওটাকে বেছে নিয়েছি। রহস্য ও সায়েন্স ফিকশন উপাদান কিন্তু আমাদের দেশের প্রেক্ষাপটে।

চঞ্চল চৌধুরী ও ফজলুর রহমান বাবুর কথা কি শুরু থেকেই ভেবেছিলেন?

আমি আর আশরাফুল আলম একসঙ্গে গল্পটা লিখেছি। যখন থেকে লিখছি, তখন থেকেই বাবু ভাইয়ের কথা ভেবে রেখেছিলাম। আর চঞ্চল ভাই তো আমার খুব পছন্দের শিল্পী, শক্তিশালী অ্যাক্টর। চরিত্র নিয়ে নিরীক্ষা করতে পছন্দ করেন। সেখান থেকে এ–ও মনে হয়েছে, তাঁদের দুজনের বহু বছরের চমৎকার কেমিস্ট্রি। আমাকে আলাদা করে কিছু ডেভেলপ করে দিতে হবে না, যেটা অলরেডি ডেভেলপ হয়ে আছে, সেটার ওপর যদি চরিত্রটাকে বসাই, তাহলে সেটাই বড় শক্তি পাবে। তাঁদের দুজনকে কমফোর্ট জোনে নিয়ে যাওয়ার জন্য বাড়তি অ্যাফোর্ট দেওয়ার দরকার নেই।

‘দেবী’র পর নতুন কোনো ছবিতে আর আপনাকে পাওয়া যাচ্ছে না।

করোনার আগে একটা ছবির সরকারি অনুদান পেয়েছি। কিন্তু করোনার ভেতরে কাজ শুরু করতে পারিনি। স্বাধীন বাংলা ফুটবল নিয়ে গল্প। দামাল–এর গল্পের সঙ্গে কতটা মিলবে, জানি না। তবে বেসিক মিল কোথাও কোথাও থাকতেও পারে হয়তো। স্বাধীন বাংলা ফুটবল টিম কীভাবে গঠিত হয় এবং কী কারণে হয়েছিল—টিম গঠনের ব্যাপারটা আমার মতো করে ভিজ্যুয়ালি উপস্থাপন করতে চাই। আমি তো মুক্তিযুদ্ধ দেখিনি। মুক্তিযুদ্ধের যে গল্প শুনেছি, ফটোগ্রাফ দেখেছি, এই গল্পে তা এক্সপ্লোর করতে চাই। আমার এই ছবির নাম ফুটবল ৭১।

একই ভাবনায় দুটো ছবি, সমস্যা হবে না?

মনে হয় না। এ ধরনের যেসব স্মরণীয় ইভেন্ট ও বড় বড় ব্যক্তিত্ব আছেন, তাঁদের নিয়ে একাধিক ফিল্ম সারা পৃথিবীতে তৈরি হয়। আমি আমার মতো করেই গল্পটা বলব।

শুটিংয়ের কী অবস্থা?

খুব দ্রুত শুটিং শুরু করতে চাই। মৌখিকভাবে শিল্পীদের সঙ্গে কথা হয়েছে। তবে চুক্তিপত্রে সই করা হয়নি। আগামী বছর ছবিটা মুক্তি দিতে চাই।