বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ভাইস স্টুডিওস প্রামাণ্যচিত্রটি প্রযোজনা করছে। সঙ্গে আছে ভাইস ওয়ার্ল্ড নিউজ ও এনডেভার কনটেন্ট। ২০২১ সালে শেষ ইউক্রেনে এসেছিলেন শন। তখন প্রামাণ্যচিত্রটি শুরুর প্রস্তুতি সারেন। ইউক্রেনিয়ান জয়েন্ট ফোর্সেস অপারেশন প্রেস সার্ভিস সেই সময়ের কিছু ছবি প্রকাশ করেছে।
সংবাদমাধ্যম নিউজউইক বলছে, ইউক্রেনের রাষ্ট্রপতির কার্যালয় একটি বিবৃতি দিয়ে এই অভিনেতার কাজকে প্রশংসা করেছেন। শুধু তা–ই নয়, বিবৃতিটি ইউক্রেনের রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের ফেসবুক পেজেও দেওয়া হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, ‘শন পেন প্রেসিডেন্ট কার্যালয়ে এসেছিলেন, ডেপুটি প্রাইম মিনিস্টার ইরিনা ভেরেশ্চুকের সঙ্গে কথা বলেছেন। পাশাপাশি তিনি ইউক্রেনের সেনাবাহিনীর সদস্য ও স্থানীয় সাংবাদিকদের সঙ্গেও দেখা করেছেন।’

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘এই পরিচালক কিয়েভে এসেছেন বিশেষ করে ইউক্রেনে এই মুহূর্তে ঘটে যাওয়া সব কর্মকাণ্ডকে ক্যামেরাবন্দী করতে। আমাদের দেশে রাশিয়ার আক্রমণ সম্পর্কে সত্য তুলে ধরতে। শন পেন আজকের ইউক্রেনকে সহযোগিতা করছেন। আমাদের দেশ তাঁর সাহস ও সততার জন্য তাঁর কাছে কৃতজ্ঞ।’
বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, ‘শন পেন সাহসিকতার পরিচয় দিয়েছেন, যা অনেকের মধ্যেই নেই। বিশেষ করে পশ্চিমা রাজনীতিবিদদের মধ্যে। এমন মানুষ আরও বেশি দরকার, যাঁরা ইউক্রেনের আসল বন্ধু, যাঁরা স্বাধীনতার জন্য যুদ্ধে সহযোগিতা করেন, যেন রাশিয়ার এই জঘন্য আক্রমণকে আমরা দ্রুত থামাতে পারি।’

default-image

শন পেন যুদ্ধবিরোধী ও মানবাধিকার কাজে অংশগ্রহণের জন্য বেশ প্রশংসিত। ২০২০ সালে প্রচারিত ডিসকভারি প্লাসের প্রামাণ্যচিত্র সিটিজেন পেন-এ তুলে ধরা হয়েছিল, কীভাবে শনের অলাভজনক প্রতিষ্ঠান ‘কোর’ ২০১০ সালে হাইতির ভূমিকম্পে সহযোগিতা করেছিল। শুধু তা–ই নয়, হাইতিতে কোভিড-১৯ পরীক্ষার জন্যও কাজ করেছিল এই সংস্থার সদস্যরা।

হলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন