default-image

ভূত সেজে হ্যালোইন উদ্‌যাপন করেছেন বড় পর্দার ‘ফ্রিদা’ সালমা হায়েক। লকডাউন শিথিল হতেই তিনি বেরিয়ে পড়েছিলেন ফুটবল খেলা দেখতে। স্টেডিয়াম থেকে লাইভ করে সেটা জানান দিয়েছিলেন এই হলিউড তারকা। তাঁর লাইভ থেকেই দেখা গেল, হাজার দর্শকের সেই গ্যালারিতে তিনিসহ হাতে গোনা কয়েকজন দর্শক।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ভোট গণনা চলছিল। এ নিয়ে এতটুকু মাথাব্যথা ছিল না সালমা হায়েকের। অন্তত অন্য তারকাদের মতো সরাসরি নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নেননি তিনি। নিজের দেশ মেক্সিকো, শ্বশুরবাড়ি ফ্রান্সে হলেও তিনি থাকেন যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলেসে। মাঝেমধ্যে চলে যান প্যারিসে।

যুক্তরাষ্ট্র নিয়ে তাঁর কথা সামান্যই, ‘নিয়মিত খাজনা দিই, নাগরিক হিসেবে নিজ দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করি।’ তবে নাপা ভ্যালির অগ্নিকাণ্ড তাঁকে বিচলিত করেছিল। করোনাকালে চিকিৎসকদের পাশাপাশি ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের টুপিখোলা অভিবাদন জানিয়েছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

আগুন নিয়ন্ত্রণে আসার পর তাঁদের উদ্দেশে সালমা লিখেছেন, ‘এই মানুষগুলো না থাকলে এখানকার মানুষ, গাছপালা আর পশুপাখির কী যে হতো! তাই সম্মুখসারির এই অগ্নিযোদ্ধাদের জানাই টুপিখোলা অভিবাদন। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে আপনারা যেভাবে অন্যের জীবন ও সম্পদ রক্ষা করেন, তা মানুষ হিসেবে আমাকে গর্বিত আর অনুপ্রাণিত করে। আপনাদের প্রতি জানাই ভালোবাসা ও কৃতজ্ঞতা।’

default-image

সালমা হায়েকের জীবনসঙ্গী ফ্রাঙ্কো-হেনরি পিনাল্ট বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ডের স্বত্বাধিকারী। সেসবের মধ্যে রয়েছে গুচি, আলেক্সান্দ্রা ম্যাককুইন, ইভ সাঁ লোহ, ব্যালেনসিয়াগা। প্রায় ৬০ হাজার কোটি টাকার মালিক ফ্রাঙ্কো। ঘরের মানুষ ফ্যাশন ও প্রসাধনী প্রতিষ্ঠানের মালিক বলে জামাকাপড় আর সুগন্ধি কিনতে হয় না সালমার। সমসাময়িক অন্য তারকাদের চেয়ে তাঁর জীবন অত্যন্ত বিলাসবহুল। নিজেও কিন্তু কম ধনী নন এই তারকা। সালমা হায়েকের মোট সম্পদের পরিমাণ প্রায় ১ হাজার কোটি টাকা।

default-image

১৯৯৫ সালে ‘ডেসপারেডো’ ছবিটি করে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পান সালমা হায়েক। এরপরও বহু ছবিতে অভিনয় করেছেন এই মেক্সিকান-আমেরিকান তারকা। গত শতকের নব্বইয়ের দশক থেকে হলিউড মাতিয়েছেন সালমা হায়েক।

default-image

তাঁর গ্ল্যামার ও অভিনয় কাঁপিয়েছে বিশ্বকে। তাঁর অনেক ভক্ত মনে করেন, এই গ্রহের সবচেয়ে রূপবতী নারীর নাম সালমা হায়েক। পঞ্চাশ পেরিয়েও তাঁর সৌন্দর্য এতটুকু মলিন হয়নি।

default-image

গত জুন মাসে নিজ আঙিনায় সবুজ পাতার সঙ্গে সেলফি পোস্ট করেছিলেন মেক্সিকান-আমেরিকান এই তারকা। ইনস্টাগ্রামে ওই ছবিতে তাঁর রূপের প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়ে উঠতে দেখা যায় ভক্তদের। বেশির ভাগের মত, সালমা প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের আধার। তাঁর মেকআপ লাগে না। কেউবা মন্তব্য করেছেন, তিনি একজন সুন্দর মনের মানুষও বটে।

default-image
বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0