ব্রুক শিল্ডসকে নিয়ে নির্মিত হয়েছে তথ্যচিত্র ‘প্রিটি বেবি: ব্রুক শিল্ডস’। গত শুক্রবার সানডান্স চলচ্চিত্র উৎসবে তথ্যচিত্রটির প্রিমিয়ার হয়। এই প্রিমিয়ার অনুষ্ঠানেই তিনি জানালেন ছোটবেলার সেই ধর্ষণের ঘটনা। এত দিন তিনি চুপ করে থাকলেও এত বছর পর তিনি সেই ঘটনা প্রকাশ করলেন। কিন্তু অভিযুক্ত সেই ব্যক্তির নাম তিনি প্রকাশ করেননি।

ঘটনার বিস্তারিত জানিয়ে ব্রুক শিল্ডস জানান, তখন তিনি কলেজ পাস করেছেন মাত্র। সিনেমায় কাজের আশায় এক ব্যক্তির সঙ্গে তাঁর পরিচয় হয়। এরপর অডিশনের কথা বলে তাঁকে হোটেলরুমে ডেকে নিয়ে যান তিনি; ভেবেছিলেন তাঁকে নতুন কোনো ছবিতে অভিনয়ের কাজ দেবেন ওই ব্যক্তি। কিন্তু হোটেলরুমে নিয়ে তাঁকে ধর্ষণ করেন ওই ব্যক্তি।

ব্রুক জানান, ওই সময় প্রতিবাদ করার মতো সাহস ছিল না তাঁর।

এত বছর পর এসে অভিনেত্রী সবাইকে জানালেন, ছোটবেলায় ঘটে যাওয়া ওই ঘটনার কথা। তখনই অবশ্য ব্রুক এই ঘটনা তাঁর এক বন্ধুকে বিষয়টি জানিয়েছিলেন। কিন্তু তখন তাঁরা ভয় পেয়ে গিয়েছিলেন, তাই চুপ করে ছিলেন। এত দিন পর তাঁর এই অভিযোগ আবারও উসকে দিল বিশ্বজুড়ে হওয়া ‘হ্যাশট্যাগ মি টু’ আন্দোলনকে।

আশির দশকে ‘দ্য ব্লু লেগুন’ ছবিতে অভিনয় করে জনপ্রিয়তা পান ব্রুক শিল্ডস। এরপর আরও কয়েকটি ছবিতে তাঁর অভিনয় দেখে মুগ্ধ হয় দর্শক। তাঁর অভিনয় ও সৌন্দর্যে মুগ্ধ হয়ে প্রেমের প্রস্তাব দিয়েছিলেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও। কিন্তু ব্রুক শিল্ডস তাঁকে ফিরিয়ে দিয়েছিলেন।