মাত্র ২৫ বছর বয়সে ব্রিটিশ রাজত্বের দায়িত্ব গ্রহণ করেন রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ। ৭০ বছরের রাজকার্যে যুক্তরাজ্য তো বটেই, সারা দুনিয়ার অনেক ইতিহাসের সাক্ষী তিনি। জীবদ্দশাতেই রানিকে নিয়ে তৈরি হয়েছে অনেক চলচ্চিত্র, তথ্যচিত্র, টিভি ও ওয়েব সিরিজ। সেখান থেকে উল্লেখযোগ্য পাঁচটি নিয়ে এই আয়োজন

সারা বিশ্বের ৩৫ কোটি মানুষ দেখেছে ‘রয়্যাল ফ্যামিলি’
ছবি : সংগৃহীত

‘রয়্যাল ফ্যামিলি’, ১৯৬৯
রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথকে নিয়ে নির্মিত তথ্যচিত্র। এটি মূলত নির্মিত হয় রানি ও তাঁর পরিবারকে নিয়ে। তথ্যচিত্রটি বিবিসি ওয়ান ও আইটিভিতে প্রচারিত হয়। যুক্তরাজ্যের তিন কোটি দর্শক টানতে সক্ষম হয়েছিল তথ্যচিত্রটি। দুনিয়াজুড়েই সে সময় ব্যাপকভাবে বিক্রি হয়েছে এই তথ্যচিত্র।

মনে করা হয়, সারা বিশ্বের ৩৫ কোটি মানুষ দেখে ‘রয়্যাল ফ্যামিলি’। তবে রানি তথ্যচিত্রটির প্রচার নিষিদ্ধ করেন, ১৯৭৭ সাল থেকে ‘রয়্যাল ফ্যামিলি’ প্রচারে এই নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়। রানি মনে করেছিলেন, তথ্যচিত্রটি প্রচারিত হলে রাজপরিবারের সব রহস্য ফাঁস হয়ে যাবে। পরে তিনি তথ্যচিত্রটি ধারণের অনুমতি দেওয়ার জন্য আফসোসও করেন। তবে গত বছর অনলাইনে ফাঁস হওয়ার পর তথ্যচিত্রটি এখন ইউটিউবেই আছে। ১১০ মিনিটের তথ্যচিত্রটিতে মূলত বাকিংহাম প্যালেসে রানির নিত্যদিনের জীবনযাত্রা দেখানো হয়। তুলে ধরা হয় তাঁর পরিবারের নানা অজানা বিষয়।

‘দ্য কুইন’–এ রানির চরিত্রে অভিনয় করে সেরা অভিনেত্রী হিসেবে অস্কার জেতেন হেলেন মিরেন
ছবি : সংগৃহীত

‘দ্য কুইন’, ২০০৬
রানিকে নিয়ে নির্মিত সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য কাজগুলোর একটি। পিটার মরগানের এই ছবিতে রানির চরিত্রে অভিনয় করে সেরা অভিনেত্রী হিসেবে অস্কার জেতেন হেলেন মিরেন। প্রিন্সেস ডায়ানার মৃত্যু–পরবর্তী ঘটনাগুলো নিয়ে রানিকে যেভাবে সংগ্রাম করতে হয়েছে, সিনেমাতে সেটিই দেখানো হয়েছে। ছবিতে মিরেনের অভিনয়ের প্রশংসা করেছিলেন রানি স্বয়ং, তাঁকে বাকিংহাম প্যালেসে নৈশভোজের আমন্ত্রণও জানিয়েছিলেন। তবে হলিউডে অন্য একটি সিনেমার শুটিংয়ে ব্যস্ত থাকায় হাজির হতে পারেননি।

রানির চরিত্রে অভিনয় প্রসঙ্গে মিরেন বলেন, ‘পরচুলা ও চশমা পরার পর যেন আপনা-আপনিই চরিত্রটি হয়ে উঠি। প্রস্তুতি হিসেবে আমি তাঁর ছবি ও ভিডিও ফুটেজ দেখতাম। এ ছাড়া শুটিংয়ের সময় তাঁর আলোকচিত্র সঙ্গে রাখতাম।’

ছবিতে এলিজাবেথের চরিত্রে অভিনয় করেন সারাহ গর্ডন
ছবি : সংগৃহীত

‘আ রয়্যাল নাইট আউট’, ২০১৫
রোমান্টিক-কমেডি ড্রামা ছবিটির পরিচালক জুলিয়ান জ্যারল্ড। ১৯৪৫ সালে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের বিজয় (ভিক্টরি ইন ইউরোপ) উদ্‌যাপিত হয়। তরুণ এলিজাবেথ ও তাঁর বোন মার্গারেটও উৎসবে যোগ দেওয়ার অনুমোদন পান। তাঁদের সেই উদ্‌যাপনের গল্প নিয়েই সিনেমাটি। এখানে এলিজাবেথের চরিত্রে অভিনয় করেন সারাহ গর্ডন। ছবিটি সমালোচকের কাছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া পায়।

রানির চরিত্রে অভিনয় সম্পর্কে গর্ডন বলেন, ‘তিনি এমন একজন নারী, যিনি এর মধ্যেই অনুকরণীয় ব্যক্তিত্বে পরিণত হয়েছেন। পর্দায় তাঁর চরিত্রে অভিনয়ের চেয়ে দারুণ ব্যাপার আর কী হতে পারে। আমার আগে অনেকেই তাঁর চরিত্রে অভিনয় করেছেন, তাঁকে নিয়ে জানার অনেক কিছুই আছে; এগুলো আমাকে সাহায্য করেছে।’

‘দ্য ক্রাউন’– এর তৃতীয় ও চতুর্থ সিজনে রানির চরিত্রে অভিনয় করে খ্যাতি পেয়েছেন অলিভিয়া কোলম্যান
ছবি : সংগৃহীত

‘দ্য ক্রাউন’, ২০১৬
রানির শাসনকাল নিয়ে নির্মিত সবচেয়ে আলোচিত সিরিজ। নেটফ্লিক্সে সিরিজটি প্রচারের পর থেকে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে, নানা কারণে সমালোচিতও হয়েছে। সিরিজটিতে বিভিন্ন বয়সী এলিজাবেথের চরিত্রে অভিনয় করেছেন ক্লেয়ার ফয়, অলিভিয়া কোলম্যান ও ইমেলডা স্টনটন। এর মধ্যে প্রথম দুই সিরিজে এলিজাবেথের চরিত্রে অভিনয় করে এমি ও গোল্ডেন গ্লোব জিতেছেন ক্লেয়ার ফয়। তবে তৃতীয় ও চতুর্থ সিজনে রানির চরিত্রে অভিনয় করে সবচেয়ে বেশি খ্যাতি পেয়েছেন বোধ হয় অলিভিয়া কোলম্যান।

চরিত্রটির কল্যাণে গোল্ডেন গ্লোব, এমির সঙ্গে জিতেছেন সেগ অ্যাওয়ার্ডস। রানির চরিত্রে অভিনয় অবশ্য আগেও করেছেন এই ব্রিটিশ অভিনেত্রী। ২০১২ সালে ‘হাইড পার্ক অন হাডসন’-এও রানির চরিত্রে অভিনয় করেন তিনি। রানির চরিত্রে অভিনয় প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘রীতিমতো তাঁর প্রেমে পড়ে গেছি। তিনি অবিশ্বাস্য। সবকিছু সম্পর্কে আমার দর্শন তিনি বদলে দিয়েছেন।’

তথ্যচিত্র ‘এলিজাবেথ: দ্য আনসিন কুইন’ –এর একটি দৃশ্য
ছবি : সংগৃহীত

‘এলিজাবেথ: দ্য আনসিন কুইন’, ২০২২
ব্রিটিশ রাজপরিবার নিয়ে বিবিসির তথ্যচিত্রটি চলতি বছর মুক্তি পেয়েছে। রানির শাসনের ৭০ বছর পূর্তি উপলক্ষে এটি তৈরি হয়। এতে রানির ১৯২৬ সালের ফুটেজও স্থান পেয়েছে, যেখানে বোনের সঙ্গে তাঁকে খেলতে দেখা গেছে।

তথ্যচিত্রে রানির অনেক ব্যক্তিগত মুহূর্ত উঠে এসেছে, যার মধ্যে আছে তাঁর বাগদান ও পরিবারের সঙ্গে প্রথমবার বিদেশ সফরের অনেক দৃশ্যও। মুক্তির পর তথ্যচিত্রটি ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হয়, দৈনিক টেলিগ্রাফ পাঁচে পাঁচ রেটিং দিয়ে লিখেছে, ‘তথ্যচিত্রটি আপনাকে রানির খুব কাছাকাছি নিয়ে যাবে।’

আরও পড়ুন

রানি এলিজাবেথের চরিত্রে তাঁরা