নিজেকে ছাড়িয়ে
চীনা দার্শনিক কনফুসিয়াসের উক্তি ফেসবুকে পোস্ট করে পূজা চেরি লিখেছিলেন, ‘সবকিছুরই সৌন্দর্য আছে, কিন্তু সবাই তা দেখতে পায় না।’ সঙ্গে জুড়ে দিয়েছেন সদ্য তোলা কয়েকটি ছবি। কোঁকড়া চুলে, মুখে গোলাপ আর রোদচশমায় পূজাকে দেখে বলিউড তারকা আলিয়া ভাটের সঙ্গে পূজার মিল খুঁজছেন ভক্তরা। আলিয়া ভাটের মতো না হলেও বাংলা সিনেমার নায়িকাদের মধ্যে একটা অবস্থান করে নিয়েছেন তিনি।
সিয়াম আহমেদ থেকে শাকিব খান—সবার সঙ্গে জুটি বেঁধে দ্যুতি ছড়িয়েছেন পূজা।

নায়িকা-সংকটের মধ্যে এখন পূজার ওপর বাজি ধরতে পারেন পরিচালকেরা। ক্যারিয়ারের শুরুতে শিশুশিল্পী হিসেবে পরিচিতি পাওয়ার পর চিত্রনায়িকা হিসেবে পরিচয় তৈরি করা খুব কঠিন ছিল। সেই কঠিনকেই ভালোবেসেছেন খুলনার মেয়ে পূজা।
২০১৮ সালে নূরজাহান দিয়ে চিত্রনায়িকা হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেছেন—প্রথম সিনেমায় আলোচিত হয়েছেন পূজা। একই বছর মুক্তি পাওয়া পোড়ামন ২ ও দহন দিয়ে নিজেকেই যেন আরও ছাড়িয়ে যান। পোড়ামন ২ সিনেমার জন্য ‘মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার’-এ দর্শকদের ভোটে সেরা অভিনেত্রী নির্বাচিত হয়েছেন তিনি।

চলতি বছর শাকিব খানের বিপরীতে গলুই সিনেমায় মালা চরিত্রে নিজেকে মেলে ধরেছেন পূজা, সাবলীল অভিনয় করে দর্শকমহলে প্রশংসিত হয়েছেন। শান-এ চেনা গণ্ডি পেরিয়ে ভিন্নরূপে দেখা গেছে তাঁকে। সর্বশেষ কথাসাহিত্যিক আনিসুল হকের উপন্যাস অবলম্বনে হৃদিতায় নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছেন পূজা।
আগামী দিনে পূজার মাসুদ রানা, ক্যাশ, নাকফুল, জিনসহ বেশ কয়েকটি সিনেমা মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে। এর মধ্যে মাসুদ রানায় সোহানার ভূমিকায় পাওয়া যাবে পূজাকে। শুটিংয়ের কয়েকটি ছবি প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই তাঁকে নিয়ে আলোচনা হয়েছে।

সিনেমার বাইরে ওটিটি প্ল্যাটফর্মেও আত্মপ্রকাশ করছেন পূজা—প্যারাইসাইকোলজি, পরীসহ বেশ কয়েকটি সিরিজ রয়েছে মুক্তির অপেক্ষায়। এসব সিনেমা ও সিরিজে ভালো করলে আগামী বছরটা নিজের করে নিতে পারেন পূজা চেরি।

জ্বলে ওঠার অপেক্ষায়


দীঘির চিত্রনায়িকা হওয়ার গল্পও অনেকটা পূজা চেরির মতোই, শিশুশিল্পী হিসেবে তিনিও অভিনয় শুরু করেছেন শৈশবে। দীঘির নামের সঙ্গে ঢালিউডের সবচেয়ে ‘জনপ্রিয় শিশুশিল্পী’র তকমাও জুড়ে দেন কেউ কেউ। শিশুশিল্পীর ইমেজ ভেঙে পুরোদস্তুর নায়িকা হিসেবে আত্মপ্রকাশের আগে বেশ কয়েক বছর অভিনয়ের বাইরে ছিলেন দীঘি।

প্রায় আট বছরের বিরতি ভেঙে গত বছর দেলোয়ার জাহান ঝন্টুর তুমি আছো তুমি নেই সিনেমায় নায়িকা হিসেবে আবির্ভূত হন দীঘি। তবে নায়িকা হিসেবে অভিষেক খুব একটা সুখকর হয়নি, সিনেমাটি মুখ থুবড়ে পড়ে। দীঘির অভিনয়ও ছিল গড়পড়তা।
তবে টুঙ্গিপাড়ার মিয়া ভাই সিনেমায় শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব চরিত্রে মিশে যেতে পেরেছিলেন দীঘি। তবে দীঘির ক্যারিয়ারে সেরা অভিনয়টা তখনো দেখেনি দর্শকেরা, চলতি বছর চরকি ফ্লিক শেষ চিঠিতে তুলি চরিত্রে অভিনয় করে বাজিমাত করেছেন। নিজেকে ভেঙেচুরে চরিত্রের মাঝে সঁপে দিয়েছেন দীঘি—ঢাকাই ছবির নায়িকাদের গ্ল্যামারাস লুকের বাইরে হাজির হয়েছেন ভিন্ন রূপে। ফলও পেয়েছেন। দর্শকের সঙ্গে জুটেছে সমালোচকদের প্রশংসাও।

আগামী বছর মুক্তির অপেক্ষায় থাকা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনীভিত্তিক চলচ্চিত্র মুজিব: একটি জাতির রূপকার সিনেমায় তাঁর ক্যারিয়ারের বাঁকবদল ঘটাতে পারে। সিনেমায় আবারও শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের তরুণ বয়সের চরিত্রে অভিনয় করেছেন দীঘি। এর বাইরে করেছেন তাম্মি নামের একটি ওয়েব সিরিজ। অভিনয়ের বাইরে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে রয়েছে দীঘির সরব উপস্থিতি।

এই এলেন বলে


অপারেশন সুন্দরবন সিনেমায় লেফটেন্যান্ট কমান্ডার রিশান চরিত্রে অভিনয় করে আলাদা নজর কেড়েছেন জিয়াউল রোশান। উচ্চতা, লুক মিলিয়ে তাঁকে ঢাকাই ছবির অন্যতম প্রতিশ্রুতিশীল অভিনেতা মনে করেন অনেকে। তবে রোশান এখনো পুরোপুরি ভক্তদের প্রত্যাশা মেটাতে পারেননি। ২০১৬ সালে পরীমনির বিপরীতে রক্ত সিনেমায় অভিষেক ঘটে রোশানের। পরের বছরই সুযোগ পান দেব প্রযোজিত টালিগঞ্জের ছবি ককপিট-এ। ছয় বছরের ক্যারিয়ারে ধ্যাততেরিকী, ককপিট, মেকআপ, আশীর্বাদ, মুখোশসহ বেশ কয়েকটি আলোচিত সিনেমায় কাজ করেছেন রোশান।

পূজা চেরি, শবনম বুবলী, মাহি থেকে তমা মির্জা—এই সময়ে ঢালিউডের আলোচিত বেশির ভাগ নায়িকার সঙ্গেই কাজ করেছেন তিনি। অপারেশন সুন্দরবন-এ পারফরম্যান্সের কারণে অনেক পরিচালকই রোশানকে নিয়ে কাজ করতে আগ্রহী হয়েছেন। সামনে রোশান অভিনীত পাপ, করপোরেট, রিভেঞ্জ, প্রেম পুরাণ, বিট্রে, জামদানি, লন্ডন লাভসহ বেশ কয়েকটি সিনেমা মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে। আলাপ চলছে আরও কয়েকটি নিয়ে। সব মিলিয়ে নিজেকে আরও একধাপ এগিয়ে নেওয়ার মঞ্চ তৈরি, বাকি কেবল রোশানের পারফর্ম করার অপেক্ষা।