সেই থেকে প্রতিবছর ১ ডিসেম্বর চ্যানেল আই প্রাঙ্গণে বিভিন্ন ব্যান্ডের অংশগ্রহণে ‘ব্যান্ড মিউজিক ডে ও কনসার্ট’ করে আসছে চ্যানেল আই। চ্যানেল আইয়ের এই আয়োজন সঙ্গে এবার যুক্ত হয়েছে বামবা। মঙ্গলবার দুপুরে চ্যানেল আই স্টুডিওতে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলন বামবার সভাপতি হামিন আহমেদ জানান, আইয়ুব বাচ্চুর স্বপ্নকে ধারণ করে চ্যানেল আইয়ের এমন উদ্যোগের সঙ্গে প্রথমবার যুক্ত হয়ে বছরের সবচেয়ে বড় কনসার্ট আয়োজন করতে যাচ্ছে বামবা। সংবাদ সম্মেলনে চ্যানেল আইয়ের পরিচালক ও বার্তা প্রধান শাইখ সিরাজ, নকিব খান, ফুয়াদ নাসের বাবু, মাকসুদুল হকসহ অনেকে বক্তব্য দেন। পাশাপাশি বিভিন্ন ব্যান্ডের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

অন্যান্য বছরের তুলনায় এবার ১ ডিসেম্বর আরও বড় আয়োজনে ‘ব্যান্ড মিউজিক ডে’ উদ্‌যাপনের পাশাপাশি ডিসেম্বরের প্রথম শুক্রবার (২ ডিসেম্বর) ঢাকার আর্মি স্টেডিয়ামে ‘ব্যান্ড মিউজিক ফেস্ট–২০২২’–এর আয়োজন করা হবে। এতে গাইবে নগরবাউল, মাইলস, ওযারফেইজ, সোলস, রেনেসাঁ, ফিডব্যাক, অর্থহীন, মাকসুদ ও ঢাকা, অবসকিউর, দলছুট, আর্টসেল, শিরোনামহীন, ভাইকিংস, ক্রিপটিকফেইট, পেন্টাগন ও পাওয়ারসার্জ। www.getsetrock.com এর ওয়েবসাইটে লগ-ইন করে টিকিট সংগ্রহ করতে পারবেন আগ্রহীরা। টিকিটের মূল্য ধরা হয়েছে ৫০০ টাকা।

আয়োজকেরা জানান, ১ ডিসেম্বর বেলা ১১টায় চ্যানেল আই প্রাঙ্গণ থেকে ব্যান্ড মিউজিক ডের উদ্বোধন করা হবে। প্রধান অতিথি থাকবেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ, বিশেষ অতিথি হিসেবে থাকবেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত থাকবেন বামবার তালিকাভুক্ত ৫২টি ব্যান্ডের সদস্যরা। এ অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে স্মরণ করা হবে আজম খান, আইয়ুব বাচ্চু, লাকী আখান্দ্‌সহ প্রয়াত ব্যান্ড তারকাদের।

আগামী দিনে ঢাকার বাইরে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে দিনটি উদ্‌যাপন ও কনসার্টের আয়োজনের পরিকল্পনার কথা জানান আয়োজকেরা। বাংলাদেশের জন্মের ইতিহাসের সঙ্গে জড়িয়ে আছে ব্যান্ড সংগীতের নাম। বাংলাদেশের ব্যান্ড সংগীতের পুরোধা আজম খান মুক্তিযুদ্ধকালে অস্ত্র হাতে গেরিলা অভিযানে অংশ নেওয়ার পাশাপাশি ভারতের মেঘালয়ের প্রশিক্ষণ ক্যাম্পে গান গেয়ে সহযোদ্ধাদের উজ্জীবিত করেছেন। স্বাধীনতার পর ‘উচ্চারণ’ নামে একটি ব্যান্ড গঠন করেন আজম খান; এটিই বাংলাদেশের প্রথম ব্যান্ড। উচ্চারণ থেকেই এসেছে আজম খানের তুমুল জনপ্রিয় গান ‘সালেকা মালেকা’, ‘রেললাইনের ওই বস্তিতে’র মতো গান।

ফিরোজ সাঁই, ফকির আলমগীর, ফেরদৌস ওয়াহিদ, সোলস, মাইলস, রেনেসাঁ, ফিডব্যাক, নগরবাউল, এলআরবি, দলছুট, মাকসুদ ও ঢাকার মতো ব্যক্তি ও ব্যান্ড বাংলাদেশের ব্যান্ড সংগীতের কাঠামো তৈরি করেছে। পরে তাতে যুক্ত হয়েছে শিরোনামহীন, ব্ল্যাক, আর্টসেল, জলের গান, অর্থহীন, ক্রিপটিক ফেইট, চিরকুটের মতো ব্যান্ড।