default-image

বাংলা খেয়ালের উদ্যোক্তা ও সংগীত ব্যক্তিত্ব আজাদ রহমানকে স্মরণ করে অষ্টমবারের মতো শুরু হচ্ছে ‘ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলা খেয়াল উৎসব ২০২১’। তাঁর হাত ধরেই চ্যানেল আইয়ে প্রথমবার শুরু হয়েছিল বাংলা খেয়াল উৎসবের আসর। কিন্তু গেল বছর প্রয়াত হন উৎসবের অন্যতম আয়োজক, বাংলা খেয়ালের উদ্যোক্তা, সংগীতজ্ঞ ও সংস্কৃতিকেন্দ্রের চেয়ারম্যান আজাদ রহমান। আজাদ রহমানকে স্মরণ করেই অষ্টমবারের মতো এবার শুরু হতে যাচ্ছে এ উৎসব।
এবারের আসর ৩১ জানুয়ারি রোববার বিকেল ৫টা ২০ মিনিট থেকে শুরু হয়ে চলবে ১ ফেব্রুয়ারি সকাল ৯টা পর্যন্ত। শনিবার দুপুরে তেজগাঁওয়ের চ্যানেল আই ভবনে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য তুলে ধরেন চ্যানেল আইয়ের পরিচালক ও বার্তাপ্রধান শাইখ সিরাজ, সংগীত ব্যক্তিত্ব ও ওস্তাদ করিম শাহাবুদ্দিন, অসীত রায়, প্রয়াত আজাদ রহমানের সহধর্মিণী সেলিনা আজাদ, অধ্যাপক নাশিদ কামাল, অনীল কুমার সাহা প্রমুখ।

বিজ্ঞাপন

সংবাদ সম্মেলনে শাইখ সিরাজ বলেন, ‘এবারের আয়োজনটি অন্য যেকোনো বছরের তুলনায় একটু ভিন্নতর। এ বছর করোনা পরিস্থিতির কারণে আমাদের জীবনযাত্রায় যেমন পরিবর্তন এসেছে, ঠিক তেমনি গত এক বছরে আমরা অনেক বিশিষ্ট ব্যক্তিত্বকে হারিয়েছি, যাঁদের অন্যতম এই বাংলা খেয়ালের উদ্যোক্তা প্রয়াত আজাদ রহমান।’

default-image

চ্যানেল আইয়ের পরিচালক ও বার্তাপ্রধান শাইখ সিরাজ বলেন, ‘শুদ্ধ সংগীতচর্চার প্রসারে চ্যানেল আই কাজ করছে। মানুষ এখন উচ্চাঙ্গসংগীতচর্চা এবং শোনার ব্যাপারে আগ্রহী হচ্ছে। আমরা আশা করছি, এ উৎসব দেশে উচ্চাঙ্গসংগীতের প্রসারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।’ সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত সব অতিথি এবং গণমাধ্যম ব্যক্তিত্বও বাংলা খেয়ালের উদ্যোক্তা প্রয়াত আজাদ রহমানের স্মরণে কথা বলেন। তাঁর এই সৃষ্টিকে আরও বিস্তৃতভাবে সবার মধ্যে ছড়িয়ে দেওয়ার আহ্বান জানান তাঁরা।
বাংলা ভাষায় খেয়ালকে জনপ্রিয় করার জন্যই প্রতিবছর এ উদ্যোগ নেওয়া হয়। তবে এ বছর করোনা পরিস্থিতির কারণে প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্যবিধি মেনে তুলনামূলক ছোট পরিসরে উৎসবটি চ্যানেল আইয়ের ৪ নম্বর স্টুডিও থেকে সরাসরি সম্প্রচার করা হবে।

গান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন