বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গানটির কথা লিখেছেন সঞ্জীবন চক্রবর্তী ও উজ্জ্বল সিনহা। সুর ও সংগীতায়োজন করেছেন উজ্জ্বল সিনহা।

default-image

কল্পলোকের ব্যানারে গানটির ভিডিও নির্মাণ করছেন উজ্জ্বল রহমান। মিউজিক ভিডিওর কোরিওগ্রাফি করেছেন ঢাকা ললিতকলা একাডেমির সাইফুল ইসলাম। আর ভিডিওতে অংশ নিয়েছেন নানা ক্ষেত্রের শতাধিক শিল্পী।

default-image

‘ছোটবেলা থেকেই শারদীয় দুর্গোৎসব এলে কলকাতার দিকে চেয়ে থাকতাম। সেটি গান হোক আর ফ্যাশন। কারণ, আমাদের এখানে এ বিষয়টি তেমন গুরুত্ব পেত না। এটা আমার কাছে অনেক আক্ষেপের একটি বিষয় ছিল। সেই আক্ষেপ থেকেই বড় ক্যানভাসের এই গানের উদ্যোগ,’ এভাবেই গানটি তৈরির প্রেক্ষাপট তুলে ধরলেন বিপ্লব সাহা। তাঁর আশা পূজার যে আনন্দ, এ গানে সেটি খুঁজে পাবেন শ্রোতা-দর্শক।

তিনি বলেন, উজ্জ্বল সিনহা দারুণ সুর করেছেন। হৈমন্তী, কর্ণিয়া ও স্বপ্নীল যথেষ্ট আন্তরিকতা নিয়ে গেয়েছেন। খুব কঠিন একটি গান আমরা উজ্জ্বলদার সহযোগিতায় সহজে গাইতে পেরেছি। তাই এটি নিয়ে আমি ভীষণ আশাবাদী।’

default-image

অন্য শিল্পীরাও গানটি নিয়ে উচ্ছ্বসিত। শিল্পী স্বপ্নীল সজীব বলেন, ‘বিপ্লবদাদার বিশেষ কিছু কাজ সিগনেচার হয়ে থাকে। আমার বিশ্বাস এ কাজটিও সিগনেচার হয়েই রবে।’
শিগগিরই গানটি ফ্যাশন হাউজ বিশ্ব রঙের ফেসবুক পেজ ও ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ পাবে।

গান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন