বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

জি বাংলায় গত ১৪ আগস্ট প্রচারিত হয় ডান্স বাংলা ডান্সের ২৫তম পর্ব। সেখানে পরিবেশনা নিয়ে আসেন রাকেশ ও প্রীতম। পরিবেশনার আগে দর্শকদের জানানো হয়, প্রীতমের বাবা তাঁর নাচ করাকে সহজভাবে গ্রহণ করছেন না। তাঁর সন্দেহ, নাচ করে ভবিষ্যতে ছেলে কিছুই করতে পারবে না। এমনকি ছেলের পরিবেশনা তিনি নিজে কখনো দেখেননি। প্রীতম জানিয়েছেন, বাবা যদি তাঁর নাচ করা মেনে নেন, তাহলেই তাঁর জীবন সার্থক। এ পর্বে অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয় প্রীতমের মা-বাবাকে, যা প্রীতমের জন্য ছিল চমক। ছেলের নাচ প্রসঙ্গে প্রীতমের বাবার সঙ্গে কথা বলেন অনুষ্ঠানের বিচারক কলকাতার অভিনয়শিল্পী শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায়, জিৎ, অঙ্কুশ হাজরা প্রমুখ।

default-image

‘বাবা’ গানে নৃত্য পরিবেশন চলাকালে উপস্থিত তারকা-অতিথি অনেকের চোখে জল দেখা যায়। পরিবেশনার পর শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায় বলেন, ‘ভীষণ আবেগপ্রবণ একটা পরিবেশনা দেখলাম। আমার কাছে এ এক অসাধারণ পরিবেশনা।’ অতিথি বিচারক বলিউড অভিনেতা গোবিন্দ বলেন, ‘খুব সুন্দর পরিবেশনা। আমার মনে হয়, বাবার চেয়ে বড় কোনো হিরো হয় না।’ অভিনেতা জিৎ পরিবেশনার প্রতিক্রিয়া জানিয়ে বলেন, ‘গানটাই এত সুন্দর, আর এত দিনে তোমার ইচ্ছে পূরণ হয়েছে, তুমি তোমার বাবাকে কাছে পেয়েছ, গানটাও সে রকম। সুন্দর একটা জাদুকরী মুহূর্তের অবতারণা হয়েছে।’

অনুষ্ঠানের অন্যতম সঞ্চালক অঙ্কুশ হাজরা বলেন, ‘এই গানের কথা ও সুর যিনি করেছেন, প্রিন্স মাহমুদ ভাই, জেমস ভাইয়ের গাওয়া। এত সুন্দর একটা গান কম্পোজ করা ও গাওয়ার জন্য আমরা কৃতজ্ঞ আপনাদের কাছে।’

default-image

প্রথমবারের মতো প্রীতমদের নাচ দেখতে আসেন তাঁর বাবা প্রদীপ অধিকারী। ‘বাবা’ গানের মর্মস্পর্শী সুর ও সংগীতের সঙ্গে ছেলের পরিবেশনায় চোখের জল ধরে রাখতে পারেননি তিনি। চোখের জল ধরে রাখতে পারেননি অঙ্কুশও। প্রদীপ অধিকারী বলেন, ‘ছেলের ওপর ভরসা হচ্ছিল না। নাচ করে কিছু হবে? তবে ওর বন্ধুরা বলেছিল, ও এত ভালো জায়গায় পৌঁছে গেছে, ওকে আমার সাপোর্ট করা উচিত ছিল।’

default-image

এদিকে ডান্স বাংলা ডান্সে ‘বাবা’ গানের এমন উপস্থাপনা ও প্রশংসায় অভিনন্দিত হচ্ছেন গানটির গীতিকবি ও সুরকার প্রিন্স মাহমুদ। পরিবেশনার কিছু অংশের ভিডিও ফেসবুকে পোস্ট করে তিনি লিখেছেন, ভালো লাগছে। সেখানে বহু মানুষ শুভেচ্ছা, ভালোবাসা ও শ্রদ্ধা জানিয়েছেন সুরকারকে। উল্লেখ্য, ২০০০ সালে প্রিন্স মাহমুদের সুরে প্রকাশিত হয় মিক্সড অ্যালবাম ‘হারজিৎ’। সেখানেই জেমসের কণ্ঠে ‘বাবা’ গানটি প্রথম প্রকাশিত হয়। তখন থেকে আজ অবধি গানটি মনে রেখেছেন বাংলা গানের শ্রোতারা।

গান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন