default-image

কোভিড-১৯-এর টিকার দ্বিতীয় ডোজ গত মাসে গ্রহণ করেছেন লোকশিল্পী কুদ্দুস বয়াতি। শারীরিকভাবে বেশ ভালো আছেন তিনি। নিজে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পাশাপাশি সবাইকে সচেতনও করছেন তিনি। জানালেন, টিকা নিতে গিয়ে ব্যথা বা ভয় কোনোটাই পাননি তিনি। এ টিকা সবারই গ্রহণ করা উচিত।

বিজ্ঞাপন
default-image

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম আসার বহু আগে থেকে বাংলাদেশের জনপ্রিয় মুখ কুদ্দুস বয়াতি। এখন ফেসবুকেও সরব এই শিল্পী। নানা রকম ছবি ও ভিডিও পোস্ট করে ভক্ত ও অনুসারীদের উজ্জীবিত রাখেন তিনি। সম্প্রতি করোনার টিকার দ্বিতীয় ডোজ গ্রহণ করার ভিডিও পোস্ট করেছেন তিনি। ভিডিওতে সবার উদ্দেশে তিনি বলেছেন, ‘প্রথমবার একটা ছবি ভাইরাল হয়েছিল একটু মুখটা ব্যাজার করছিলাম বলে। আসলে ব্যথা পাইনি। আজ দেখবেন কেমন হাসি হাসি মুখে টিকা নিই।’ প্রথম আলোকে তিনি বলেন, ‘বয়স যখন অনেক কম ছিল, তখন কলেরার টিকা দিয়েছিলাম। তখন ব্যথাও পেয়েছিলাম। করোনার টিকার প্রথম ডোজ দেওয়ার সময় সেই স্মৃতি মনে পড়ে যায়। সে কারণে মুখটা বিকৃত হয়ে গিয়েছিল। আসলে ব্যথা পাইনি। দ্বিতীয় টিকা নিলাম কিছু দিন আগে। এখন ভালোই আছি। যে পারেন, টিকাটা নিয়ে নেন।’

default-image

নানা কারণে বেশ কিছুদিন নতুন গান করতে পারছেন না কুদ্দুস বয়াতি। সেসবের অন্যতম কারণ মহামারি। করোনায় মানুষের মৃত্যুতে শোকাহত এই লোকশিল্পী। তিনি বলেন, ‘গান করার জন্য মনে আনন্দ লাগে। তা ছাড়া আমার সঙ্গে বাজাবে সে রকম মানুষও পাই না। আপাতত বেঁচে আছি, আবার সময় ভালো হলে গান করব। আশপাশের লোকজনের সঙ্গে মিলেমিশে ভালো থাকার চেষ্টা করছি।’

বিজ্ঞাপন
default-image

কুদ্দুস বয়াতির জন্ম কাউন্দিয়া উপজেলায় ১৯৫৯ সালের ১ জানুয়ারি। তিনি কাঙালিনী সুফিয়া, আবদুর রহমান বয়াতি ও আনুশেহ আনাদিলের সঙ্গে দল বেঁধে গান করতেন। এরও আগে বিভিন্ন সময় মঞ্চ ও টেলিভিশনে গান করেছেন কুদ্দুস বয়াতি।

গান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন