দশ দেশের শিল্পীর গানে কোনাল
দশ দেশের শিল্পীর গানে কোনাল সংগৃহীত

জার্মান সংগীত পরিচালক রবার্ট বার্থার সংগীত পরিচালনায় বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে তৈরি হয়েছে ‘থ্রু দ্য টাইগার্স আই’ শিরোনামে একটি গান। শুক্রবার রাতে গানটি প্রকাশিত হয় বার্থার ইউটিউব চ্যানেলে। এই গানে বাংলাদেশ, জার্মানি, স্পেন, হাঙ্গেরি, আয়ারল্যান্ড, ফ্রান্স, সুইডেন, মাল্টা, ব্রাজিল ও পোলান্ডের ১০ দেশের ১০ জন শিল্পী কণ্ঠ দিয়েছেন। বাংলাদেশ থেকে শিল্পী হিসেবে অংশগ্রহণ করেছেন সোমনূর মনির কোনাল। কেবল কণ্ঠই দেননি, এই গানের কথার বাংলা ভাষার অংশটিও (৪ লাইন) লেখা এই কণ্ঠশিল্পীর।

default-image

এই গানের পেছনের গল্প জানতে কোনালকে ফোন করলে তিনি বলেন, ‘গানটির প্রযোজক ও মিউজিক ডিরেক্টর জার্মান কম্পোজার রবার্ট বার্থা। আর এই প্রকল্পের কো–অর্ডিনেটর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন ড্যানিয়েল সেইডল। ড্যানিয়েলই জার্মানি থেকে আমার সঙ্গে যোগাযোগ করেন। তিনি জানান যে গানের জন্য বাংলা চার লাইন আমাকেই লিখতে হবে। এর আগে আমি একবার একটা গান লিখেছিলাম। তবে শেষমেশ সেই গানটা আর মুক্তি পায়নি। এই কাজটা করে খুব ভালো লেগেছে। তাঁরা চেয়েছিল “কনসার্ট ফর বাংলাদেশে”র মতো কিছু একটা করতে। তারপর তৈরি হলো এই গান। নানা দেশের সব শিল্পীর সঙ্গে পরিচিত হলাম। ইনস্টাগ্রামে সবাই সবাইকে ফলো করতে শুরু করেছি। টুকটাক আলাপ হচ্ছে। সামনে আমরা আরও কাজ করব আশা করি।’

default-image
বিজ্ঞাপন

গানের উদ্যোক্তা রবার্ট বার্থার কাছে জানতে চাইলাম এ রকম একটি গান তৈরির কারণ। তিনি বলেন, ‘আমার খুব কাছের একজন বন্ধু ১০ বছরের বেশি সময় ধরে বাংলাদেশে কাজ করে। সেই সুবাদে আমারও কিছু বাংলাদেশি বন্ধু হয়ে যায়। আমি বাংলাদেশের ইতিহাস, সংস্কৃতি নিয়ে অনেক কিছুই জানি। এই দেশের মানুষ আর কৃষ্টিকে ভালোবাসি। হলিউডের বেশ কিছু সিনেমার গানের মিউজিক ডিরেকশন দিয়েছি। এ রকম গুরুত্বপূর্ণ ইভেন্টের জন্যও গান বানিয়েছি। বাংলাদেশের স্বাধীনতার অর্ধশত বছর পূর্তি উপলক্ষে এই গানটি করে খুব ভালো লেগেছে। আপনাদের যদি গানটি ভালো লাগে, সেটাই সব।’

default-image

১০ দেশের ১০ শিল্পী প্রথমে বার্থার কাছে নিজেদের অংশটুকু রেকর্ড করে পাঠিয়েছেন। পরে মিউজিক ভিডিওর জন্য যখন ভিডিওতে অংশগ্রহণ করেন, তখনই সবার সঙ্গে পরিচয় হয়। এরপর অল্পস্বল্প আলাপে বেশ বন্ধুত্ব জমিয়ে ফেলেছেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের কল্যাণে।

ইউটিউবে মুক্তির পর অসংখ্য মানুষ পছন্দ করেছেন গানটি। মন্তব্য ঘরে অনেকেই বাংলাদেশের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন এই গানের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবাইকে। বিশেষ করে রবার্ট আর ড্যানিয়েলকে। কয়েকজন আবার গানের সঙ্গে লিরিক না জুড়ে দেওয়ায় দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

default-image
গান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন