বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

আজ শুক্রবার রাত নয়টায় অবমুক্ত হবে শেকড়ে গান-এর প্রথম গান ‘আমার বন্ধু দয়াময়/ তোমারে দেখিবার মনে লয়’, গেয়েছেন অবন্তি সিঁথি। শেকড়ের গান-এর প্রকাশিতব্য প্রথম গানের শিল্পী সিঁথি বলেন, ‘আমি লোকগানের শিল্পী নই, কিন্তু এগুলো আমার প্রাণের গান। এ গানগুলো গাইতে আমার ভীষণ ভালো লাগে, কারণ এখানে মাটির ব্যাপারটা ফিল করা যায়। শৈশবে যখন কোনো প্রতিযোগিতায় গাইতাম, ফোক গানই গাইতাম। এমনকি ফোক গান গেয়ে আমি পুরস্কারও পেয়েছি। কিন্তু একটু বড় হওয়ার পর মেলোডিতে ঝুঁকলাম। তবে ফোক ধাঁচের কয়েকটি মৌলিক গান আমারও আছে। এই আয়োজনে কেবল পিয়ানোতে গানগুলো করা হয়েছে। আমার কাছে ব্যাপারটা একেবারে অন্য রকম মনে হয়েছে।’

default-image

বাংলার চিরায়ত লোকগানের বিশাল ভান্ডার থেকে বাছাই করে ৫৫টি গান ভিডিওসহ প্রস্তুত করা হয়েছে শেকড়ের গান-এর জন্য। ডিজে রাহাতের পরিকল্পনা এবং সোহাগের সংগীতায়োজনে এই সময়ের ১৬ জন তরুণ গেয়েছেন এগুলো। শিল্পীদের সেই তালিকায় আছেন আঁচল, শাওন গানওয়ালা, শামীম, আনিকা, পারভেজ, সফি মণ্ডল, পিন্টু ঘোষ, লামিয়া, সুমি মির্জা, মেজবাহ বাপ্পী, সাবরিনা সাবা, ইমরান, হাসিব, মাহতিম শাকিব, পূর্ণতা ও নূর নবী। লোকগানের তালিকায় রয়েছে ‘সহজ মানুষ’, ‘নিশা লাগিল রে’, ‘বন্ধু তোর লাইগা রে’, ‘নদী ভরা ঢেউ’, ‘খাঁচার ভেতর অচিন পাখি’, ‘হার কালা করলা রে’, ‘বিহুরে লগন’, ‘বনমালি তুমি’, ‘সময় গেলে সাধন’, ‘তুই যদি আমার হইতি রে’র মতো গানগুলো। এ ছাড়া থাকবে বেশ কয়েকটি রবীন্দ্রসংগীত ও নজরুলসংগীত।

default-image

আয়োজনের পরিকল্পনাকারী ডিজে রাহাত জানান, অনেক দিন ধরেই তাঁর এ রকম একটি পরিকল্পনা ছিল। নতুন বছরে সেটা বাস্তবায়ন করতে পেরে ভালো লাগছে। তাঁর আশা, গানগুলো লোকসংগীতপ্রেমী মানুষের ভালো লাগবে। এতগুলো গান যাঁরা করেছেন, তাঁদের কেউ কেউ ফোক গানের শিল্পী, কেউ-বা আধুনিকের। আধুনিক গানের শিল্পীর কণ্ঠে লোকগানের পিয়ানো সংস্করণ নতুন প্রজন্মের কথা মাথায় রেখেই করা হয়েছে।

default-image

প্রতি শুক্রবার অবমুক্ত হবে একটি করে শেকড়ের গান। প্রথম আলোর ফেসবুক পেজ ও ইউটিউব চ্যানেল ছাড়াও এগুলো দেখা যাবে ডিজে রাহাতের পেজ ও চ্যানেলে। প্রথম আলো ডটকম নিবেদিত শেকড়ের গান নির্মাণে সহযোগিতা করেছে ঐক্য ডটকম ডটবিডি।

গান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন