default-image

গান, লেখাপড়া, সংসার—তিন অধ্যায় শেষে নতুন অধ্যায় শুরু করেছেন সংগীতশিল্পী সালমা। এবার মানবিক উন্নয়নের কাজ শুরু করেছেন। গড়ে তুলেছেন ‘সাফিয়া ফাউন্ডেশন ফর এডুকেশনাল ডেভেলপমেন্ট’। একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশুদের শিক্ষা উপকরণ খাতা, কলম আর খেলার সরঞ্জাম বিতরণসহ দুপুরের খাবার পরিবেশন করার মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে সালমার নতুন অধ্যায়।

default-image

আজ বুধবার সকালে প্রথম আলোকে সালমা বলেন, ‘দীর্ঘদিন যাবৎ সমাজের জন্য কিছু করার ইচ্ছা নিয়ে বসে ছিলাম। কিন্তু কীভাবে কাজটি শুরু করব, বুঝতে পারছিলাম না। কারও সহযোগিতাও পাইনি। অবশেষে আমার স্বামী আইনজীবী সানাউল্লাহ নুরের সহযোগিতায় সৃষ্টিকর্তার নামে শুরু করলাম। মানবিক উন্নয়নে প্রধান এবং একমাত্র হাতিয়ার শিক্ষা। তাই বাকি জীবনটা আমি আর আমার স্বামী মিলে শিক্ষা নিয়ে কাজ করব। আমাদের মতো ক্ষুদ্র মানুষের প্রচেষ্টা যদি সামান্য হলেও সামাজিক উন্নয়নে অবদান রাখতে পারে, সেটাই হবে পরম পাওয়া।’

default-image

সালমা জানান, তিনি গত মঙ্গলবার স্বামীকে নিয়ে ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট উপজেলার বড় দাসপাড়া গ্রামের প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যান। সারা দিন সেখানে ১১ নম্বর বড় দাসপাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে বেশ খানিকটা সময় কাটিয়েছেন। বললেন, ‘আমার জীবনের একটি স্মরণীয় দিন এটি। শিশুদের কলকাকলিতে মুখর দারুণ একটি দিন কাটিয়েছি। মনে হয়েছে, আমি যেন শৈশবে ফিরে গেছি। এখান থেকে শুরু হলো। এরপর আমরা কুষ্টিয়া অঞ্চলের কোনো একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যাব। ধীরে ধীরে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের স্কুলগুলোয় যাব।’

default-image

এখন গান, সংসার এবং মানবিক কাজে নিজেকে ব্যস্ত রাখছেন সালমা। তাঁর দেশে থাকা না–থাকা নিয়ে কিছুদিন যাবৎ বিভ্রান্তিকর খবর ছড়ানো হচ্ছে বলে সালমার অভিযোগ। আবার এমনও খবর ছড়ানো হচ্ছে, তিনি আর কোনো দিন গান করবেন না। এমন খবর ভিত্তিহীন মন্তব্য করে সালমা বলেন, ‘আমি দেশেই আছি। আর গান ছাড়ার প্রশ্নই আসে না। কারণ, এই গান আমাকে আজকের সালমায় পরিণত করেছে।’

সম্প্রতি সালমা প্রথমবারের মতো হাবিব ওয়াহিদের সুরে একটি গানে কণ্ঠ দিয়েছেন, নাম ‘দূর অজনায়’। গানটি লিখেছেন অমিত কর্মকার এবং সুর ও সংগীত পরিচালনা করেছেন হাবিব ওয়াহিদ। ২০ অক্টোবর সালমা নতুন আরেকটি গানে কণ্ঠ দিয়েছেন। এরই মধ্যে জি সিরিজের ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশিত হয়েছে জয় সরকার পরিচালিত ‘ইন্দুবালা’ চলচ্চিত্রে সালমার গাওয়া ‘দুঃখের ছায়া’ গানটি। এই গানে সালমার গায়কি প্রশংসিত হয়েছে।

কুষ্টিয়ার মেয়ে মৌসুমী আক্তার সালমা সংগীতবিষয়ক রিয়েলিটি শো ‘ক্লোজআপ ওয়ান তোমাকেই খুঁজছে বাংলাদেশ’-এর দ্বিতীয় আসরের চ্যাম্পিয়ন হন। এরপর থেকে তিনি নিয়মিত গানের সঙ্গে যুক্ত রেখেছেন নিজেকে। পেয়েছেন জনপ্রিয়তা। তাঁর গাওয়া বেশ কিছু গান সাড়া ফেলেছে শ্রোতাদের মধ্যে।

বিজ্ঞাপন
গান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন