জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারজয়ী সংগীত পরিচালক শওকত আলী ইমনের বিরুদ্ধে নারী নির্যাতনের মামলা করেছেন স্ত্রী রিদিতা রেজা। গত শুক্রবার রাতে রাজধানীর ইস্কাটনের বাসা থেকে গ্রেপ্তার করা হয় ইমনকে। শনিবার তাঁকে আদালতে সোপর্দ করা হয়। আদালত তাঁকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন। রমনা থানার পরিদর্শক (অপারেশন্স) মাহফুজুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

default-image
বিজ্ঞাপন

রমনা থানার এসআই তাহমিনা আক্তার তৃণা মামলাটির তদন্ত করছেন। তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের (২০০০ সালের ৮ নং আইন) ১১(গ) ধারায় মামলা হয়েছে। তাঁর স্ত্রী অভিযোগপত্রে লিখেছেন, তাঁকে যৌতুকের জন্য মারধর করা হয়েছে। অভিযুক্ত সংগীত পরিচালক হাজতে আছেন। জামিন হয়নি। তদন্ত চলছে।’

পুলিশ জানায়, ২০ সেপ্টেম্বর শওকত আলী ইমনের স্ত্রী রিদিতা রেজা বাদী হয়ে রমনা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা করেন। পাঁচ দিন পলাতক ছিলেন ‘পূর্ণদৈর্ঘ্য প্রেমকাহিনী’ সিনেমার সংগীত পরিচালনা করে জাতীয় পুরস্কারজয়ী এই সংগীত পরিচালক। ২৫ সেপ্টেম্বর গ্রেপ্তার হন তিনি। রিদিতা রেজাকে ফোন করে মামলার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এই মুহূর্তে মামলার বিষয়ে গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে চাচ্ছি না।’ এটুকু বলেই ফোন কেটে দেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

২০২০ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি বেসরকারি টিভি চ্যানেলের সংবাদ পাঠিকা রিদিতা রেজাকে বিয়ে করেন শওকত আলী ইমন। রিদিতা তাঁর তৃতীয় স্ত্রী। ইমনের প্রথম স্ত্রী ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনয়শিল্পী বিজরী বরকতুল্লাহ। ১৯৯৫ সালে বিয়ের পর তাঁদের বিচ্ছেদ হয় ২০১২ সালে। ওই বছরের ৬ ডিসেম্বর তিথি কবির নামে এক নৃত্যশিল্পীকে বিয়ে করেছিলেন ইমন। সেই বিয়েও ভেঙে যায় ২০১৪ সালে। এর পরপরই সাবেক স্ত্রী তিথি ইমনের বিরুদ্ধে আপত্তিকর ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি ও চাঁদাবাজির অভিযোগ এনে রমনা থানায় একটি মামলা করেছিলেন। ওই মামলায় ২০১৪ সালের আগস্ট মাসে গ্রেপ্তার হয়ে শওকত আলী ইমন কারাগারে ছিলেন।

মন্তব্য পড়ুন 0