দিনাত জাহানের ফেসবুকে পোস্ট করা একটি ছবি থেকে জানা যায়, তাঁদের বহন করা গাড়িটির সামনের অংশ দুমড়েমুচড়ে গেছে। গাড়ির পেছনে থাকা মা ও মেয়ে প্রচণ্ড ধাক্কায় আহত হন। যুক্তরাষ্ট্র থেকে দিনাত জাহান মুন্নী বলেন, ‘রাস্তার মোড়ে আমাদের গাড়িটি না থেমে সামনে যেতে থাকে। এ সময় অন্য একটি গাড়িকে ধাক্কা দেয়। আমরা পেছনে বসেছিলাম। ধাক্কায় আমি বুকে, মেয়ে মাথায় আঘাত পায়। পাঁচ মিনিট পরে ফায়ার সার্ভিসের টিম আমাদের উদ্ধার করে। আমাদের হাসপাতালে পরীক্ষা–নিরীক্ষা করা হয়। চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, আমার বুকে রক্ত জমেছে। মেয়ের মাথায় প্রচণ্ড আঘাত, কিছুটা জটিলতা আছে। সাত দিন আমাদের চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণে থাকতে হবে।’

চার ঘণ্টা হাসপাতালে চিকিৎসার পরে নিউইয়র্কের বাসায় ফিরেছেন মা-মেয়ে। দিনাত জানালেন, তিন দিনের মধ্যে গুরুতর কোনো সমস্যা দেখা দিলে হাসপাতালে ভর্তি হতে হবে। বর্তমানে বাসায় রয়েছেন। তিনি আরও বলেন, ‘কিছু সময় আগে বাসায় ফিরেছি। এটা অনেক বড় একটি দুর্ঘটনা ছিল। আল্লাহর রহমতে আমি ও আমার বড় মেয়ে আজ মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরে এসেছি। এখনো একটা আতঙ্কের মধ্যে রয়েছি। আমাদের অনেক বড় কিছু হয়ে যেতে পারত।’

দিনাত জাহান মুন্নী তাঁর দুই মেয়ে ও এক ছেলেকে নিয়ে বর্তমানে নিউইর্য়কে আছেন। তাঁর স্বামী ছয়বার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত গীতিকার কবির বকুল বলেন, ‘আমি সকালে ঘুম থেকে শুনেই চমকে উঠেছি। মারাত্মক একটি দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে আমার স্ত্রী মুন্নী ও বড় মেয়ে। আপাতত তাদের পর্যবেক্ষণে থাকতে হবে। মেয়েটা অনেক ভয় পেয়েছে। সবাই একটা আতঙ্কের মধ্যে আছি।’

ছোটবেলা থেকেই গানের সঙ্গে সখ্য দিনাত জাহান মুন্নীর। স্কুলশিক্ষক মা-ই তাঁকে গানের ক্লাসে ভর্তি করে দিয়েছিলেন। পাঁচবার পেয়েছেন জাতীয় শিশু-কিশোর প্রতিযোগিতার শ্রেষ্ঠ পুরস্কার। ১৯৯৭ সালে শওকত আলী ইমনের সুরে ‘জননেতা’ সিনেমার মাধ্যমে প্লেব্যাকে তাঁর যাত্রা শুরু। তারপর আধুনিকসহ বিভিন্ন ধরনের গান গেয়েছেন। ২০০০ সালে প্রকাশিত হয় তাঁর প্রথম অ্যালবাম ‘প্রতীক্ষা’।