ঘটনার দিন রাতে কুয়াভোর সঙ্গে একটি পার্টিতে গিয়েছিলেন টেকঅফ। হঠাৎই গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। কিন্তু ঠিক কী কারণে টেকঅফকে গুলি করা হয়, সেটা জানা যায়নি। কুয়াভো রক্তাক্ত অবস্থায় ঘটনাস্থল থেকে চলে যেতে পেরেছেন। তবে সেখানে ঠিক কী হয়েছে, সে প্রসঙ্গে কুয়াভোর বক্তব্য পাওয়া যায়নি। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, ঝগড়ার একপর্যায়ে টেকঅফকে গুলি করা হয়। ঘটনাস্থলেই তাঁর মুত্যু হয়। একই ঘটনায় আহত অন্য দুজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বিবিসিকে পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনাস্থলে ৪০ থেকে ৫০ জন উপস্থিত ছিলেন। তবে কে বা কারা গোলাগুলি শুরু করেন, তাঁরা নিশ্চিত হতে পারেননি।
টেকঅফের মৃত্যুতে সংগীতাঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তাঁর সহকর্মী, ভক্তরা শোক প্রকাশ করেছেন।

১৯৯৪ সালে জর্জিয়ায় জন্ম হয় টেকঅফের। ২০০৮ সালে গড়ে ওঠে হিপহপ গানের দল মিগোস। ২০১৩ সালে মুক্তি পাওয়া সিঙ্গেল ‘ভারসাচে’ দিয়ে বিশ্বব্যাপী খ্যাতি পায় গানের দলটি। এ পর্যন্ত নিকি মিনাজ, ড্রেক, কার্ডি বিসহ অনেক বড় তারকার সঙ্গেও গান প্রকাশ করেছে হিপহপ দলটি।