কিছুদিন আগেই ভাঙড়ের জিরানগাছা ও নলমুড়ি হাসপাতালের রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পান মিমি চক্রবর্তী। দায়িত্ব পেয়েই শুক্রবার হাসপাতালে যান মিমি। হাসপাতালে ঘুরে সার্বিক অবস্থা পর্যবেক্ষণ করেন। এ সময় সেখানকার চিকিৎসক, নার্স ও সাপোর্ট স্টাফদের সঙ্গেও কথা বলেন তিনি।

এরপর এলাকার জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের সঙ্গে একটি বিশেষ আলোচনায় বসেন মিমি। আলোচনা শেষে মিমি চক্রবর্তী পাঁচ যক্ষ্মা রোগীকে দত্তক নেওয়ার কথা জানান। এরপর তিনি বলেন, ‘যক্ষ্মা রোগীদের একটি মাসিক খরচ হয়। সেই টাকাটা খুব বেশি না। আপনাদের মধ্যে যাঁদের সামর্থ্য আছে, তাঁরাও কয়েকজন রোগীকে দত্তক নিতে পারেন।’ এ ছাড়া হাসপাতালের উন্নতির জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণের কথাও তিনি বলেন।

এটিই প্রথম নয়। এর আগে একাধিকবার অসহায়, দরিদ্র মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন এই অভিনেত্রী। করোনাকালেও তিনি অনেক মানুষকে সাহায্য–সহযোগিতা করেছেন এই অভিনেত্রী।