নতুন পরিবেশ ও ছবির নতুন সহশিল্পীদের সঙ্গে মেলামেশার অভিজ্ঞতা কেমন? জানতে চাইলেন সিয়াম বলেন, ‘ভালো। কলকাতায় আমার প্রথম কাজ শুরু হবে। তার আগে পরিবেশের সঙ্গে নিজেকে খাপ খাইয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছি। কলকাতার তরুণেরা কী ধরনের গান শুনতে পছন্দ করেন, কী ধরনের সিনেমা দেখতে পছন্দ করেন, সেসব বিষয় নিজের মধ্যে আনার চেষ্টা করছি। চিত্রনাট্যের মহড়া করছি। প্রতিদিন পরিচালক সেই মহড়া পর্যবেক্ষণ করছেন। সেখান থেকে কিছু মতামতও দিচ্ছেন তিনি, যাতে চূড়ান্তভাবে ক্যামেরার সামনে কাজটি সহজ হয় আমার জন্য।’

সিয়াম আরও বলেন, ‘বাংলাদেশের সিনেমা, সিনেমার শিল্পীদের নিয়ে তাঁদের অভিজ্ঞতা আছে। বাংলাদেশের মানুষের আন্তরিকতার প্রতি তাঁদের মুগ্ধতা কাজ করে। সেই আলোকে আমার সঙ্গে তাঁদের আচার–আচরণ একেবারেই বন্ধুর মতো। দারুণভাবে আমাকে সহযোগিতা করছেন সহশিল্পীরা।’

ছবির নাম প্রাথমিকভাবে ‘প্রতিপক্ষ’ রাখা হয়েছিল। এখন নামের পরিবর্তন হবে। নতুন নাম রাখা হয়নি এখনো। ছবিতে সিয়ামের বিপরীতে অভিনয় করবেন আয়ুশী তালুকদার।

এই ছবির সহশিল্পীদের সিয়ামের কাজ আগে দেখার সুযোগ হয়েছে কি না—এ ব্যাপারে জানতে চাওয়া হলে সিয়াম বলেন, ‘বাংলাদেশের সিনেমা কলকাতায় মুক্তি পায় না। এ কারণে কলকাতার শিল্পীদের আমাদের সিনেমা দেখার সুযোগ কম। তবে আয়ুশী আমাকে বলেছেন, ভিডিও স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম চরকির কিছু ছবি দেখেছেন তিনি। তার মধ্যে আমার “টান” ছবিটিও আছে। এ ছাড়া কলকাতায় পোস্ট প্রোডাকশনের সময় আমার “দহন”, “পোড়ামন ২” ও “অপারেশন সুন্দরবন” ছবিগুলো পরিচালক দেখেছেন বলে আমাকে জানিয়েছেন।’

ছবিটিতে সংগীতশিল্পীর চরিত্রে অভিনয় করবেন সিয়াম। চরিত্রের নাম ধ্রপদ। তরুণ সংগীতশিল্পী। নানা ধরনের সংগ্রামের মধ্য দিয়ে যেতে হয় তাকে। কলকাতা শহরের হোটেল, ক্যাফেগুলোয় গান করতে দেখা যায় তাকে। শুধু নিজের জন্য নয়, আরও যেসব তরুণ সংগ্রামের মধ্য দিয়ে যায়, গান করে তাদের এগিয়ে নেওয়ার যুদ্ধেও ধ্রুপদ এগিয়ে আসে।

সিয়াম বলেন, ‘চরিত্রটি আমার জন্য একেবারেই নতুন। এ কারণে শুটিং শুরুর বেশ আগেই আমাকে রিহার্সাল করতে হচ্ছে। রিহার্সালে বুঝতে পারছি, চরিত্রটিতে বেশ মজা আছে।’
সিয়াম ও আয়ুশী ছাড়া ছবিতে আরও অভিনয় করছেন প্রসেনজিৎ, পূজা চ্যাটার্জি প্রমুখ। ছবিটির চিত্রনাট্য লিখেছেন পদ্মনাভ দাশগুপ্ত। এটি প্রযোজনা করছে কলকাতার শ্যাডো ফিল্মস। ২৪ জানুয়ারি দেশে ফেরার কথা আছে সিয়ামের।