বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

আজ শনিবার জন্মদিনে কোনো শুটিং রাখেননি। পরিবার ও বন্ধুদের সঙ্গেই দিনটি কাটিয়ে দিতে চান। বিশেষ এই দিনটির প্রথম প্রহরেই বাসায় কেক কেটেছেন। কাছের বন্ধু ও নির্মাতারা উপস্থিত ছিলেন। বাসায় সবার জন্য তাঁর মা রান্না করেন। পরিবারের সবাই পাশে থাকলেও এই অভিনেতার বাবা এই মুহূর্তে দেশে নেই। এটাই তাঁর আফসোস। তিনি বলেন, ‘দিনটায় আব্বুকে খুবই মিস করছি। বাবা থাকলে হয়তো আরও ভালো সময় কাটত। বাবা গত ১৪ বছর আমেরিকায় রয়েছেন। আমাদের জন্য তিনি সেখানে গেছেন। এই বছর হয়তো বাবা চলে আসবেন। বাবাকে ছাড়া কতগুলো জন্মদিন পালন করতে হয়েছে।’

default-image

ছোট পর্দায় ব্যস্ত এই অভিনেতার ক্যারিয়ার নিয়ে এত পরিকল্পনা ছিল না। নাটকে স্থায়ীভাবে অভিনয় করবেন, সেটাও ভাবেননি। তাই প্রত্যাশাও ছিল কম। জোভান বলেন, ‘আমার যদি অনেক পরিকল্পনা থাকত আর সেটা পূরণ করতে না পারতাম, তখন আমার কষ্ট লাগত, খারাপ লাগত। কিন্তু আমার কোনো প্রত্যাশা না থাকায় এত কম বয়সে যা পেয়েছি সে–ই অনেক। আমার মনে হয়, এই বয়সে অন্য কোনো পেশায় এত সফল হওয়া অনেকটাই কঠিন।’

default-image

‘ক্যারিয়ার আমার জীবনে অনেক ওঠাপড়ার মধ্যে দিয়ে গেছে। অনেক ভুল সিদ্ধান্ত ছিল। আমার মনে হয় যেকোনো কাজ করতে গেলেই ভুল হওয়াটা স্বাভাবিক। সেগুলো নিয়ে আমি পড়ে থাকতে চাই না। আমি সামনে এগোতে চাই,’ বলেন জোভান। আপাতত সাত দিন শুটিং থেকে বিরতি নিয়েছেন। এই সময়ে পরিবারকে নিয়ে ঘুরতে চান। নিজেকে সময় দিতে চান।

টেলিভিশন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন