বিজ্ঞাপন
default-image

তারপরও একাধিক বন্ধুর সঙ্গে বাসায় কেক কাটতে হয়েছে। তিশা বললেন, ‘পরিবার ও বন্ধুবান্ধব সবাই আমাকে এতটা ভালোবাসেন, এগুলো সবই স্মরণীয় ঘটনা হয়ে থাকে। সবাই আমাকে নানাভাবে সারপ্রাইজ দিতে চান। তাঁদের নিয়ে দিনটা দারুণ কাটে। আমি পরিবারের ছোট মেয়ে। এ কারণে আমাকে নিয়ে সবার আগ্রহ বেশি। বেশির ভাগ সময় আমি আগেই সারপ্রাইজ জেনে যাই! তাই তাঁদের কাছে থেকে মাঝেমধ্যে একটু দূরে থাকি। ভাব ধরি যেন কিছুই জানি না।’
ক্যারিয়ারে উত্থান ও পতন থাকে। সেটাকে স্বাভাবিকভাবে দেখেন অভিনেত্রী তানজিন তিশা। তিনি মনে করেন, ক্যারিয়ার কারও জন্য কখনোই থেমে থাকে না। এ জন্য নিজের জায়গা থেকে দর্শকদের জন্য ঠিকমতো অভিনয় করে যাওয়াটা জরুরি। সে পথেই তিনি হাঁটছেন। কিছু মানুষের সমালোচনা নিয়ে মাথা ঘামান না তিনি। সেসব নিয়ে বসে থাকার চেয়ে মন দিয়ে অভিনয় করে যেতে চান। নিজেকে বারবার প্রমাণ করে নীরবে সেসবের জবাব দিতে চান।

default-image

দর্শক সেই প্রমাণ পেয়েছেন ঈদের কাজে। এবার ঈদে তাঁকে দেখা গেছে মোশাররফ করিম, তাহসান, আফরান নিশোসহ একাধিক অভিনয়শিল্পীর বিপরীতে। তিশা বলেন, ‘ঈদের আগে দেড় মাস কোনো কাজ করিনি। আগের কাজগুলো দর্শক পছন্দ করেছেন, এটা আমার বড় প্রাপ্তি। বিশেষ একজনের সঙ্গে কাজ না করেও প্রশংসিত হচ্ছি।’
এক বছর ধরে তানজিন তিশা বিশেষ একজন অভিনয়শিল্পীর সঙ্গে কোনো নাটক করছেন না। অনেকে বলাবলি করছিলেন, তিশা নাকি ওই সহকর্মী ছাড়া ‘তেমন কিছু নন’। তারপরও নিয়মিত কাজ পাচ্ছেন, কাজ করে যাচ্ছেন তিনি।
আফরান নিশো ও অপূর্বের সঙ্গে জুটি হয়ে অনেক জনপ্রিয় নাটকে অভিনয় করেছেন তানজিন তিশা। অপূর্বের সঙ্গে এক বছর ধরে তাঁকে দেখা যায়নি। আবারও তাঁদের একসঙ্গে ফেরা নিয়ে তানজিন তিশা জানান, তাঁরা কাজ করবেন না, এমনটি নয়। দর্শক চাইলে অবশ্যই তাঁরা একসঙ্গে অভিনয় করবেন।

default-image

তিশা বলেন, ‘মিডিয়ায় যে কারও জন্য এটা সত্য। কারও সঙ্গে অভিনয় না করেও টিকে থাকা যায়। এ জন্য আমি সব সময় নিজের মতো করে চেষ্টা করে যাই। আমি এখনো প্রতিনিয়ত একজন অভিনয়শিল্পী হয়ে ওঠার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। এমন না যে একজনের সঙ্গে কাজ করছি না বলে আমার নাটকের ভিউ হচ্ছে না। মানুষ আমার নাটক দেখছে। অভিনয়শিল্পী হিসেবে সবার সঙ্গে পর্দা ভাগাভাগি করে যেতে চাই।’

default-image

জন্মদিনে ভক্তদের কাছ থেকে সেরা উপহার পেয়েছেন এই অভিনেত্রী। তিশা জানালেন, তাঁর ভক্তরা ফেসবুক পেজ ও ফেসবুকের গ্রুপগুলোতে গতকাল থেকেই তাঁর জন্মদিন পালন করে আসছেন। অনেকেই তাঁকে নিয়ে স্ট্যাটাস দিয়েছেন। তিশা বলেন, ‘আমার অভিনয় ক্যারিয়ারে হঠাৎ করেই কিছু বাধাবিপত্তি এসেছিল। সেটাকে জয় করে আমি নিয়মিত কাজ করে যাচ্ছি। এটা আমার ভক্তরাও জানেন। তাঁরা লিখেছেন, “তিশা আপু, নেভার গিভ আপ। যত যা–ই হোক, আপনি অভিনয় নিয়ে এগিয়ে যাবেন।” তাঁরা আমাকে অনুপ্রেরণা দেন। আমার কাজে তাঁরা অনুপ্রাণিত হন, এটাই আমার এবারের জন্মদিনে সেরা উপহার।’

এবার ঈদে তিশাকে ‘তাকে ভালোবাসা বলে’, ‘মাতাল হাওয়া’, ‘বালক–বালিকা’, ‘পেপার গার্ল’সহ একাধিক নাটকে দেখা গেছে। নাটকগুলোর শুটিং হয়েছে লকডাউনের আগে। কাজগুলো তাঁর প্রত্যাশাকেও ছাড়িয়ে গেছে। এই ধারাবাহিকতায় আগামী ঈদের জন্য বেছে বেছে কিছু কাজ করতে চান তিনি। জানালেন, জুনে নিয়মিত শুটিংয়ে ফিরবেন তিনি।

default-image
টেলিভিশন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন