default-image

প্রিয়াঙ্কা ভট্টাচার্যকে দেখা গিয়েছিল ভারতীয় টিভি চ্যানেল জি বাংলার ‘অপরাজিতা অপু’ ধারাবাহিকে। অসুস্থতা নিয়ে ধারাবাহিকের শুটিং শেষ করে কিছুদিন বিশ্রাম নিয়েছিলেন তিনি। এই যে চাপ নেওয়ার প্রবণতা, এ প্রসঙ্গে তিনি গণমাধ্যমে বলেছিলেন, ‘এ অভ্যাস আমি পেয়েছি বাবার কাছ থেকে। আমার জন্য কোনো কাজ থেমে থাকুক, এ আমি চাই না। কাজ যখন শুরু করেছি, সেটা শেষ করার সর্বোচ্চ চেষ্টা করি।’ বিশ্রামের দিনগুলোতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম থেকেও দূরে ছিলেন এই অভিনেত্রী। তারপর একের পর কাজ! প্রিয়াঙ্কা কাজ করেছেন টালিউডের ‘এফআইআর’ ছবিতে। ‘নেক্রিফিলিয়া’, ‘মন খারাপ’-এও আছেন তিনি। টালিউডে এক যুগ হয়ে গেছে তাঁর বয়স! এখন তো বলিউডে যাওয়া তাঁর অবশ্যকর্তব্য।

default-image

‘তাল্লুক’ ছবির প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন বিনয় পাঠক ও অনুপ্রিয়া গোয়েঙ্কা। পরিচালনা করছেন শ্রীতমা দত্ত। অন্য ধারার প্রেমের গল্পের এ ছবিতে অভিষেক হচ্ছে প্রিয়াঙ্কার। এ বছরের বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে যাবে ছবিটি। শ্রীতমা দত্ত জানিয়েছেন, তাঁর ছবিটি সম্পর্কের মূল্যবোধের গল্প নিয়ে। জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত প্রিয় মানুষগুলোর সঙ্গে কাটানোর জন্য সময় পাওয়া যায় মাত্র কয়েক মুহূর্তই। সেই মুহূর্তগুলো বাঁচা, স্মৃতি তৈরি করা ও উদ্‌যাপন করা উচিত। নয়তো পরে আক্ষেপ করতে হয়। এসব নিয়েই ছবির গল্প। সংবাদমাধ্যম সূত্র জানাচ্ছে, এই ছবিতে বিনয় পাঠকের মেয়ে ঈশানির চরিত্রে অভিনয় করবেন প্রিয়াঙ্কা ভট্টাচার্য।

default-image

মাত্র ১৪ বছর বয়সে অভিনয় শুরু করেছিলেন প্রিয়াঙ্কা। শুরুতে তাঁকে দেখা যায় ‘আমাদের বাড়ি’ টিভি অনুষ্ঠানে। পরে ‘মা’ ধারাবাহিকে বুবলি চরিত্রে অভিনয় করে পরিচিতি পান তিনি। টলিউডের ‘মেঘবৃষ্টির ভালোবাসা’ ছবিতে অভিনয় করেছিলেন। স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবি ‘একপশলা রূপকথায়’ তাঁকে দেখা যায়।

টেলিভিশন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন