default-image

অভিনেতা আজিজুল হাকিমের পরিবারের সবাই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। তাঁর স্ত্রী জিনাত হাকিম এবং ছেলে রেদওয়ান হাকিম কিছুটা সুস্থ থাকলেও অভিনেতা আজিজুল হাকিমের শারীরিক অবস্থা সংকটাপন্ন। চিকিৎসকের পরামর্শে সবাই বাসায় চিকিৎসা নিচ্ছেন। পরিস্থিতি বিচারে হয়তো আজিজুল হাকিমকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হতে পারে।

বিজ্ঞাপন
default-image

চলতি সপ্তাহের প্রথম দিকে হঠাৎ ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হন অভিনেতা আজিজুল হাকিম। বিষয়টিকে গুরুত্ব দেননি তিনি। প্রাথমিক চিকিৎসায় কিছুটা ভালো বোধ করেছিলেন, তবে শারীরিকভাবে দুর্বল হয়ে পড়েন। এর ঠিক এক দিন পরই অসুস্থ হয়ে পড়েন তাঁর স্ত্রী অভিনেত্রী ও নির্মাতা জিনাত হাকিম। ৯ নভেম্বর নমুনা পরীক্ষা করালে তাঁর কোভিড-১৯ পজিটিভ ধরা পড়ে। পরদিন আজিজুল হাকিমের শারীরিক দুর্বলতা আরও বেড়ে যায়। পরে এই অভিনেতা ছেলেকে নিয়ে নমুনা পরীক্ষা করালে দুজনই কোভিড-১৯ পজিটিভ বলে জানতে পারেন। এ সময় দুচিন্তা ঘিরে ধরে এই পরিবারকে। ফোনে দুর্বল শোনায় আজিজুল হাকিমের কণ্ঠ। ভাঙা ভাঙা স্বরে তিনি জানান, কিছুক্ষণ আগে শরীরের উত্তাপ পরিমাপ করেছেন। সকাল থেকে বেশ কয়েকবার বমি হয়েছে। তিনি বলেন, ‘কদিন আগে বাসার পানির লাইন থেকে নষ্ট পানি আসছিল। ভুল করে সেটাই ফিল্টার করে খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ি। ডায়রিয়ায় শরীর দুর্বল হয়ে পড়ে আর শ্বাসকষ্ট বাড়তে থাকে। পরে কোভিড-১৯ টেস্ট করিয়ে দেখি, পজিটিভ এসেছে।’

default-image

জিনাত হাকিম ও তাঁদের ছেলে রেদওয়ান হাকিম ভালো আছেন। তবে তাঁদেরও জ্বর ও মৃদু শ্বাসকষ্ট রয়েছে। কিন্তু আজিজুল হাকিমের জ্বর ১০২-১০৩ ডিগ্রি ওঠানামা করছে। জিনাত হাকিম বলেন, ‘ছেলের কোনো চিন্তা নেই। সে অনলাইনে ক্লাস করছে। আমারও শরীর দুর্বল। হাকিমের জন্য দুশ্চিন্তা বাড়ছে। সে কিছুটা ঘাবড়ে গেছে, সে জন্য কিছুটা ভয় পাচ্ছি। তাঁর একটা রিপোর্ট একটু খারাপ। দুপুর থেকে জ্বর নিয়ন্ত্রণে থাকলেও শ্বাসকষ্ট ও দুর্বলতা বাড়ছে। ডাক্তারদের সঙ্গে সব সময় পরামর্শ করছি। দু-এক দিন দেখে অবস্থা বুঝে তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করাব।’

বাসার তিনটি আলাদা রুমে আছেন তাঁরা। চিকিৎসকের পরামর্শে আদা–চা, ডাবের পানি ও অন্যান্য খাবার খাচ্ছেন। তাঁদের স্বজনদের মধ্যে থাকা চিকিৎসকেরাই তাঁদের নানা রকম পরামর্শ দিচ্ছেন। কোভিড-১৯ টেস্টের সময় রক্তের বেশ কিছু পরীক্ষা করানো হয়েছে, যেগুলো পাওয়া যাবে দুদিন পর। এই দম্পতি জানান, শ্বশুরবাড়িতে অবস্থানরত তাঁদের মেয়ে নাযাও করোনায় আক্রান্ত বলে ধারণা করছেন। তাঁর নমুনাও পরীক্ষা করতে দেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
default-image

গত জুন মাস থেকে সীমিত পরিসরে ঘরের বাইরে বের হতে শুরু করেছিলেন হাকিম দম্পতি। তখন থেকেই খুব সাবধানে চলাফেরা করতেন তাঁরা। কীভাবে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলেন, তা এখনো বুঝে উঠতে পারছেন না তাঁরা। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ায় চলমান সব নাটকের শুটিং বাদ দিতে হয়েছে আজিজুল হাকিমকে। একটি নাটকের কাজে ঢাকার বাইরে যাওয়ার কথা থাকলেও সেই শুটিংও বাতিল করেছেন জিনাত হাকিম।

মন্তব্য পড়ুন 0