বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

এই ৫ কিশোরই নিলয়ের ভক্ত। এই অভিনেতা সাজেক আসার পর ফেসবুক লাইভে আসেন, ঘোরাঘুরির অনেক ছবি পোস্ট করেন। তখনই কিশোরের দল জানতে পারে, প্রিয় অভিনেতা তদের শহরে এসেছেন। সাজেকে ঘোরাঘুরি শেষ করে নিলয় লাইভে জানান, তিনি সাজেক থেকে খাগড়াছড়িতে যাবেন। লাইভ শুনে প্রিয় অভিনেতাকে দেখার জন্য রাস্তায় অপেক্ষা করতে থাকে তারা। নিলয় বলেন, ‘রাস্তায় লাঞ্চ ব্রেক দেওয়ায় অনেকটা সময় পার হয়ে যায়। দেরি দেখে এই কিশোরের দল ভেবেছিল আর দেখা হবে না। তারপর সিএনজি নিয়ে আমাকে খুঁজতে বের হয়। অনেক খুঁজে তারা আমাকে পেয়েছে।’

default-image

পছন্দের অভিনেতার দেখা পেয়ে তারা খুশি। সুন্দর এই মুহূর্তটাকে ধরে রাখতে চেয়েছিল তারা। কিন্তু কিশোরদের কারও কাছে মোবাইল ছিল না। শেষে নিলয়কেই অনুরোধ করে তাদের ছবি তুলতে। বাধ্য হয়ে নিজের ফোনে তাদের সঙ্গে সেলফি তোলেন নিলয়। কথা দেন, ছবিটি তিনি ফ্যান গ্রুপে শেয়ার করবেন। ‘আমার কাছে মনে হলো ছেলেগুলো এত কষ্ট করেছে, ছবি না তুললে তো আফসোস করবে। পরে ফেসবুকে ছবি পোস্ট করে লিখেছি, তাদের পরিচিত কেউ থাকলে ছবিগুলো দিয়ে দেবেন,’ বলেন নিলয়।

default-image

লকডাউনের মধ্যে জুলাই মাসে ঘরোয়া পরিবেশে বিয়ে করেন নিলয়। তাঁর স্ত্রীর নাম তাসনুভা তাবাসসুম। আগস্টের শেষ দিকে স্ত্রীকে নিয়ে কক্সবাজার হানিমুনে গিয়েছিলেন। এবার তাঁদের দ্বিতীয় হানিমুন। স্ত্রীর সঙ্গে এভাবেই হুটহাট করে মাঝেমধ্যে ঘুরতে বের হতে চান নিলয়। তিনি বলেন, ‘স্ত্রীকে নিয়ে ঘোরার সময় ভালো কোনো জায়গা দেখলাম, মনে হলো একসঙ্গে ছবি তুলি। দেখা যায় আমি আর স্ত্রীর সঙ্গে ছবি তুলতে পারছি না। ভক্তদের সঙ্গে ছবি তুলতে হচ্ছে। কিন্তু কাউকে না করা যায় না। পরিবেশটার সঙ্গে আমার স্ত্রীও অভ্যস্ত হয়ে যাচ্ছে। এখন তার সঙ্গেও ভক্তরা ছবি তোলে।’ আপাতত তাঁদের ঘোরাঘুরি শেষ। আগামীকাল ঢাকায় ফিরবেন। পরেই নিয়মিত শুটিং শুরু করবেন নিলয়।

টেলিভিশন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন