গতকাল ২৫ অক্টোবর ছিল অভিনেত্রী শখের জন্মদিন। বিশেষ দিনটি উপলক্ষে এই অভিনেত্রীর সঙ্গে ঘটা মজার ঘটনা ভাগাভাগি করে সজল ফেসবুকে লিখেছেন, “‘মেরিল–প্রথম আলো” অ্যাওয়ার্ড প্রোগ্রাম। সালটা ২০১০ বা ২০১১ হবে। অনুষ্ঠানে আমি, শখ, আরিফিন শুভ, বিদ্যা সিনহা মিম, সারিকা আর নীরব—এই ছয়জনের পারফরম্যান্স ছিল। আমরা মঞ্চে উঠছি। সবশেষে হাবিব, কণা, তাঁরাও আছেন। প্রথম এন্ট্রিই ছিল আমাদের। শখ স্টেজে যাওয়ার পরে আমার যাওয়ার কথা। স্টেজে অন্যদের হাতে অনেক প্রপস ছিল। সেখানে ফুল, প্রজাপতি থেকে শুরু করে বিভিন্ন কিছু। এগুলোর ভেতর দিয়েই আসতে হবে।’

শখ যাওয়ার পরে মঞ্চে প্রবেশ করেন সজল। প্রবেশ করতে গিয়ে ঘটে যায় দুর্ঘটনা। সজল লিখেছেন ‘মঞ্চে পা রাখার পরেই, অন্যদের হাতে থাকা প্রপসের একটা কোনা আমার চোখের ওপর দিয়ে চলে যায়। তখন চোখে তেমন কিছু দেখতে পাচ্ছিলাম না। কিন্তু শো যেহেতু মাস্ট গো অন, থামা যাবে না। আমি ওভাবেই কিছু না দেখে এগিয়ে গেলাম। আমাকে দেখে শখ নিমেষে বুঝতে পেরেছিল আমি চোখে কিছু না দেখেই পারফর্ম করছি। তখন শখ এত সুন্দর করে আমাকে নিয়ে এসে পারফরম্যান্সটা করল, আমিও ভুলে গেলাম চোখে কিছু হয়েছে। যদিও চোখ ভীষণ জ্বলছিল। ওই অবস্থায় পারফরম্যান্স থেকে বের হয়ে আবারও স্টেজে ঢুকতে হবে। আমি চোখ বন্ধ করে বাইরে দাঁড়িয়ে আছি। তখন শখ সাহস দেয়, কিচ্ছু হয়নি, আর অল্প কিছুক্ষণ। আবারও উঠে পারফরম্যান্স শেষ করে বের হয়ে আসলাম। পরে যখন ভিডিও দেখলাম, বোঝা গেল না যে এত বড় একটা দুর্ঘটনা ঘটেছিল। শখ মানুষটাই এমন। সবকিছুতে সব সময়ই সবার পাশে থাকে।’

শখকে নিয়ে সজল আরও লিখেছেন, ‘শখের সঙ্গে ১৫ বছর আগে যায়যায়দিন পত্রিকা অফিসে প্রথম দেখা। সে তার মা–বাবার ভীষণ আদরের এক মেয়ে, সে জন্য সব সময়ই আঙ্কেল বা আন্টি কাউকে না কাউকে ওর সঙ্গেই দেখতাম। সেই থেকে প্রায়ই কাজে কিংবা কাজের বাইরে প্রায়ই শখের সঙ্গে দেখা হয়। খুব মনখোলা একজন মেয়ে। কোনো ভণিতা বিষয়টা একেবারেই নেই। মানুষ হিসেবে অসাধারণ। একই সঙ্গে ভালো অভিনেত্রী, ভালো নৃত্যশিল্পী ও মডেল। আমি ব্যক্তিগতভাবে শখকে পছন্দ করি এজ এ ড্যান্সার হিসেবে। সে ভীষণ ভালো নৃত্যশিল্পী। জন্মদিনে তোমাকে শুভকামনা।’