প্রসূন জানান, তাঁর সন্তানের নাম রাখবেন তাঁর বাবা আজাদ ও স্বামী ফারহানের নাম থেকে মিলিয়ে ফারজাদ। বর্তমানে ফারজাদকে নিয়ে এখনো হাসপাতালেই রয়েছেন। প্রসূন বলেন, ‘চিকিৎসক জানিয়েছিলেন আমার সন্তান জন্ম হতে পারে ডিসেম্বরের মাঝামাঝি। সেভাবেই প্রস্তুতি ছিল। পরে এই শুরু থেকেই পানি কমে যেতে থাকে। খুবই চিন্তায় পড়ে যাই। একসময় ভেঙেও পড়ি। পরে হাসপাতালে ভর্তি হই। প্রথম দিকে স্বাভাবিক ডেলিভারি চেয়েছিলাম। এই জন্য ৫ দিন অপেক্ষা করতে হয়েছে। পরে অবস্থা আরও খারাপ হতে থাকে। তখন চিকিৎসকেরা জানান, জরুরি ভিত্তিতে সিজার করতে হবে।’

প্রসূন আরও জানান, তাঁর সন্তানের ওজন আড়াই কেজি। মা ও সন্তান এখন সুস্থ রয়েছেন। মা হওয়ার অনুভূতি জানাতে গিয়ে প্রসূন বলেন, ‘জীবনটা অন্য রকম হয়ে গেল। অনাগত সন্তানকে নিয়ে খুবই চিন্তিত ছিলাম। আমার ওজন বেশি। অনেক শারীরিক জটিলতা। সন্তান সুস্থ হয়েছে, এটাই সেরা পাওয়া। আমি কিছুটা অসুস্থ ছিলাম। এখন সুস্থ হয়ে উঠছি। দু–এক দিনের মধ্যে আমরা ছেলেকে নিয়ে বাড়ি যাব। কোনো কষ্টই এখন আর কষ্ট মনে হচ্ছে না।’

গত জুন মাসে এই অভিনেত্রী জানিয়েছিলেন মা হতে চলেছেন। এই অভিনেত্রী গত বছর ৩০ জুলাই বিয়ে করেন। তাঁর স্বামী দীর্ঘদিনের বন্ধু ফারহান মালেক। প্রসূন ২০১২ সালে লাক্স চ্যানেল আই সুপারস্টারের প্রথম রানারআপ হয়ে শোবিজে যাত্রা শুরু করেন। এরপর একাধিক নাটকে ও কিছু সিনেমায় নিয়মিত অভিনয় করেন। পরে হঠাৎ অভিনয় থেকে নিজেকে সরিয়ে নেন। সর্বশেষ গত বছর তাঁর অভিনীত ‘পদ্মাপুরাণ’ সিনেমা মুক্তি পায়।