গ্রামীণ পটভূমির নাটক ‘বকুলপুর সিজন টু’ নতুন এক মাইলফলক স্পর্শ করছে। আজ মঙ্গলবার রাত সাড়ে আটটায় দীপ্ত টিভিতে নাটকটির ৫০০তম পর্ব প্রচারিত হবে। খবরটি নিয়ে উচ্ছ্বসিত নাটকটির পরিচালক কায়সার আহমেদ।


পরিচালক বলেন, ‘দর্শকের ভালোবাসায় এতটা পথ আসতে পেরেছি। নাটকের প্রতিটি চরিত্র দর্শকের পছন্দের হয়ে উঠেছে। আমাদের ইচ্ছা আছে, এক হাজার পর্ব পর্যন্ত নাটকটিকে নিয়ে যাওয়া। সেভাবেই পরিকল্পনা করে এগোচ্ছি।’

আরও পড়ুন

চরিত্রটা বোল্ড, আমি প্রস্তুত না: নাদিয়া

‘বকুলপুর’ নাটকের প্রথম সিজন ৩৬০ পর্বে শেষ হয়। দর্শকের কাছে নাটকের জনপ্রিয়তায় চ্যানেল কর্তৃপক্ষের অনুরোধে সিজন টু করার উদ্যোগ নিতে হয়। বকুলপুর সিজন টু–এর আগামী পর্বগুলো প্রসঙ্গে কায়সার আহমেদ জানান, নাটকের পরবর্তী গল্পে নতুন বাঁক আছে। রহস্যজনক চরিত্র বিটি ও ভয়ংকর চরিত্র আসলাম মৃধার খারাপ পরিকল্পনার বিরুদ্ধে গোপনে কাজ করে যাবে ঘুড্ডি। তাকে সাহায্য করবে দিবা। অ্যাকশনে নামবে পুলিশ। শেষ পর্যন্ত কি বিটি ও আসলাম মৃধা ধরা পড়বে? থাকবে চমকের পর চমক।

‘বকুলপুর সিজন টু’ নাটকের রচয়িতা আহমেদ শাহাবুদ্দীন। এই নাটকের বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন সুজাতা আজিম, ফারজানা ছবি, আনিসুর রহমান মিলন, আ খ ম হাসান, নাদিয়া আহমেদ, শ্যামল মাওলা, তাহমিনা সুলতানা মৌ, সাজু খাদেম, শামীমা তুষ্টি, ওয়ালিউল হক রুমি, টুটুল চৌধুরী, নাবিলা ইসলাম, হোমায়ারা হিমু, ওবিদ রেহান প্রমুখ। নাটকে প্রিন্সেস দিবা চরিত্রে অভিনয় করেছেন নাদিয়া আহমেদ।

‘বকুলপুর সিজন টু’ নাটকের একটি দৃশ্যে নাদিয়া আহমেদ
ছবি: পরিচালকের সৌজন্যে

তিনি জানান, নাটকটি অল্প সময়ে খুবই জনপ্রিয়তা পেয়েছে। তিনি বলেন, ‘যেকোনো কাজে শিল্পী যদি দর্শকের কাছ থেকে সাড়া পান, ভালোবাসা পান, সেটা অনেক আনন্দের ব্যাপার। নাটকের ৫০০তম পর্বের প্রচারের খবরে আমিও ভীষণ আনন্দিত।’

নিজের চরিত্র প্রসঙ্গে নাদিয়া বলেন, প্রিন্সেস দিবা পোড় খাওয়া মেয়ে। তাকে জীবনে অনেক কষ্ট করতে হয়েছে। মানুষের কাছে হাত পাততে হয়েছে। একটা সময় যাত্রাদলে প্রিন্সেস হিসেবে কাজ শুরু করে সে। দর্শকের কাছে ভীষণ জনপ্রিয়তা পায়। তার অনেক নাম হয়, কিন্তু তার এই পেশা ভালো লাগে না। দিন শেষে সে নিজের মতো করে বাঁচতে চায়।

আরও পড়ুন

ওটিটিকে ভালো কাজের সুযোগ হিসেবে দেখেন নাবিলা